fff
হুগলি

ইচ্ছের জোর! ট্রেন চালানোর স্বপ্ন অধরা, বাড়িতেই আস্ত ইলেক্ট্রিক ট্রেন বানিয়ে ফেললেন বৃদ্ধ

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ হুগলীর শ্রীরামপুরের বাসিন্দা প্রভাস আচার্য, পেশায় পুরোহিত হলেও ছোটো থেকেই স্বপ্ন ছিলো ট্রেন চালক হবেন। কিন্তু অর্থাভাবে সেই স্বপ্ন পূরণ না হলেও বাড়িতেই আস্ত ইলেকট্রনিক ট্রেন বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন বছর পয়ষট্টির এই পৌঢ়। আর্থিক অনটনের জন্য পড়াশুনা বেশিদূর এগোতে পারেননি, তাই ট্রেন চালক হওয়া স্বপ্ন অধরাই থেকেছে। কিন্তু বাড়িতে বসেই তাঁর বানানো পূর্ব রেলের লোকাল ট্রেনের আদলে একটা গোটা ইলেট্রনিক ট্রেন এখন নতুন স্বপ্ন দেখাচ্ছে প্রভাস বাবুকে।

ইস্পাত-অ্যালুমিনিয়ামে তৈরি এই ট্রেনে কি নেই! হুবুহু আসল ট্রেনের মতোই পরপর কামরা, কামরার ভিতরে ওপরে ধরার হাতল, বসার আসন, সামনের বাফার, সিগনাল লাইট, চাকা, বাইরে বৈদ্যুতিক তার সমন্বিত এই ট্রেন এখন পাড়ি দিছে প্রভাস বাবুর নতুন স্বপ্নের পথে। পৌরহিত্য করে সামান্য যা অর্থ পান, তাই দিয়েই বানিয়েছেন এই ট্রেন। ইতিমধ্যে কয়েকটা বিক্রিও হয়েছে। এখন তাঁর স্বপ্ন এই প্রকল্প ব্যবসায়িক রূপ পাক। কিন্তু সেই আর্থিক সামর্থ তাঁর নেই, তাই প্রভাস বাবু চাইছেন কোনো শিল্পপতি অথবা সরকার যদি এই এগিয়ে আসেন তাহলেই এই প্রকল্পের ব্যবসায়িক রূপ দেওয়া সম্ভব। যদি কোনো সহৃদয় ব্যক্তি অথবা সরকার এগিয়ে আসে তাহলে দেখিয়ে দেবো কিভাবে বড়ো মডেলের ইলেকট্রনিক ট্রেন বানাতে হয়- দৃঢ়তার সঙ্গে জানান দিচ্ছেন ষাটোর্ধ্ব এই বৃদ্ধ। এই ট্রেন তৈরি করতে অ্যালুমিনিয়াম শিট, লোহা, ব্যাটারি, ইলেকট্রিক তার সহ নানান জিনিস লেগেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই ট্রেন কোথা থেকে ছাড়বে, কোথায় থামবে পুরোটাই এখন তাঁরই হস্তগত। কোনো প্রাতিষ্ঠানিক ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াশুনা না থাকলেও স্কুলে কর্মশিক্ষার ক্লাসে ট্রেন বানানোর অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়েই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এই পৌঢ়। আপাতত ট্রেন চালক হওয়ার স্বপ্ন পূরণ না হলেও একটা গোটা ইলেকট্রনিক মডেল ট্রেনের মালিক হয়েই নতুন স্বপ্নের পথে পাড়ি দেওয়ার আশায় বুক বাঁধছেন শ্রীরামপুরের প্রভাস বাবু।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please Disable your ADBlocker!