খবরমহানগররাজ্য

এত দিনে চাকরি হয়নি কেন? শিক্ষক দিবসে ২৩ জনকে চাকরির নির্দেশ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের

মহানগর বার্তা ডেস্ক : শিক্ষক দিবসের দিন মিলে গেল সুখবর। সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে ফের বড় নির্দেশ। পুজোর মুখেই চাকরি পেতে চলেছেন ২৩ জন টেট উত্তীর্ণ প্রার্থী। প্রাথমিক পর্ষদের ভুলে তাঁরা চাকরি পাননি বলে অভিযোগ।পর্ষদ নিজেদের ভুল স্বীকার করে নিলেও এখনও চাকরি দেননি এই অভিযোগে মামলাটি দায়ের হয়েছিল।সোমবার সেই মামলার শুনানিতেই এই নির্দেশ দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের ভুল হয়েছিল। সেই ভুল তাঁরা স্বীকারও করেছিল। কিন্তু তারপরেও এই ২৩ জন চাকরিপ্রার্থীর চাকরি হয়নি। ভুল স্বীকার করেও চাকরি নয় কেন? এই প্রশ্ন তুলেই তাদের চাকরি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিত্‍ গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর নির্দেশ, শূন্যপদ না থাকলে প্রয়োজনে তা তৈরি করে এই মামলাকারী ২৩ জনকে চাকরি দিতে হবে। আসলে ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষার নিয়োগ হয় ২০১৬ সালে এবং ২০২০ সালে।২০১৫ সালে টেটে ফল প্রকাশের সময় এই ২৩ জনকে অনুত্তীর্ণ ঘোষণা করা হয়। অর্থাত্‍ নিয়োগ থেকে বঞ্চিত হন তাঁরা। পরে বিশেষজ্ঞ কমিটি জানায় ওই ছয়টি প্রশ্ন ভুল ছিল।

দায়ের হয় হাই কোর্টে। এই সময় সকলকে বাড়তি ছয় নম্বর দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়। এই ২৩ জনের অভিযোগ ছিল আদালতের নির্দেশের পরেও এদের ভবাড়তি ছয় নম্বর করে দেওয়া হয়নি। পরে ওই ২৩ জন ২০২০ সালে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে।

পরে নিয়োগের ক্ষেত্রে পর্ষদ কিছু বদল আনে। ফলত ২০২০ সালেও তাঁরা বঞ্চিত হয়। তখন চাকরি প্রার্থীদের বক্তব্য ছিল, ২০১৬ সালে অপ্রশিক্ষিতদের নিয়োগ করা হয়েছিল। পর্ষদের ভুলের কারণেই নিয়োগ হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা।

সোমবার সেই মামলার শুনানি ছিল কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিত্‍ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে। সেখানে স্পষ্ট করে বিচারপতি জানিয়ে দেন, এখানে ভুল একেবারে স্পষ্ট। ভুল করেছে পর্ষদ। তাই আগামী ২৩ দিনের মধ্যে ২৩ জনকে নিয়োগের কথা জানিয়েছেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close