রাজ্যখবর

হিন্দুরা ‘ভণ্ড’ ! গুজরাতের রাজ্যপালের মন্তব্যে শোরগোল

মহানগর বার্তা ডেস্ক: হিন্দুদের ‘ভণ্ড’এবং ‘সবথেকে বড় ধর্মান্ধ’ বলে উল্লেখ করে বিতর্কে জড়ালেন গুজরাটের রাজ্যপাল আচার্য দেবব্রত(Acharya-Devvrat) ৷ সূত্রের খবর, বুধবার আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে হিন্দুদের প্রসঙ্গে এই ধরনের মন্তব্য করেন তিনি ৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার গুজরাটের নর্মদা জেলার পৈচা গ্রামে সংশ্লিষ্ট অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়েছিল ৷ বিষয় ছিল, ‘প্রকৃতির কোলে জৈব চাষ’ ৷ অভিযোগ, সেই অনুষ্ঠানের মঞ্চে বক্তব্য পেশ করার সময়েই হিন্দুদের ভণ্ড ও সবথেকে বড় ধর্মান্ধ বলে উল্লেখ করেন রাজ্যপাল আচার্য দেবব্রত (Acharya-Devvrat)।

আরও পড়ুন:নাবালিকা পড়ুয়াকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার কর্নাটকের মুরুঘা মঠের প্রধান সাধু শিবমূর্তি

রাজ্যের দু’টি প্রথম সারির সংবাদপত্রে এই প্রসঙ্গে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে ৷ তাতে রাজ্যপালের মন্তব্য উদ্ধৃত করে লেখা হয়েছে, “লোকজন মুখে বলেন, ‘জয় গোমাতা’ ! কিন্তু, তাঁরা তাঁদের গোয়ালে একটি গরুকে ততদিনই আশ্রয় দেন, যতদিন সেই প্রাণীটি দুধ দিতে সক্ষম থাকে ৷ যে মুহূর্তে গরুটি আর দুধ দিতে পারে না, সঙ্গে সঙ্গে তাকে রাস্তায় ছেড়ে আসা হয় ৷ এই কারণেই আমি বলি, হিন্দুরা সবথেকে বড় ভণ্ড ৷ হিন্দু ধর্মের সঙ্গে গরু ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে ৷ কিন্তু, যাঁরা জয় গোমাতা মন্ত্র জপেন, তাঁরা আসলে নিজের স্বার্থে এই কাজ করেন ৷ ”

আরও পড়ুন:ছোটো থেকে বাবাকে দেখেননি, ফেসবুক ঘেঁটে বাবাকে খুঁজে পেলেন ১৮ বছরের তরুণী

রাজ্যপালের মুখে আরও শোনা যায়, “মানুষ মন্দির, মসজিদ, গির্জা, গুরুদ্বারে যান ৷ তাঁরা ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেন, যাতে ঈশ্বর তাঁদের আশীর্বাদ করেন ৷ আমি বলতে চাই, আপনারা যদি জৈব চাষের দিকে মুখ ফেরান, তাহলে ঈশ্বর এমনিতেই আপনাদের আশীর্বাদ করবেন ৷ বিভিন্ন বিজ্ঞানসম্মত প্রমাণ থেকে আমি বলতে পারি, যে মুহূর্তে আপনারা চাষের কাজে রাসায়নিক সার ব্যবহার করেন, সেই মুহূর্তেই আপনারা আপনাদের গবাদি পশুগুলিকে খুন করেন ৷ আপনারা যদি জৈব পদ্ধতিতে চাষ করেন, তাহলে আপনারা আপনাদের গবাদি পশুগুলিকে জীবনদান করবেন ৷”

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close