আন্তর্জাতিক

দেহের তুলনায় ছোটো মাথা! বিরল রোগের শিকার তরুণের কপালে জুটল ‘Monkey’ তকমা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: সমাজে যা কিছু স্বাভাবিক, সেই মাপকাঠির বাইরে কিছু দেখলেই আমাদের হাসি পায়। দুঃখের বিষয়, মানুষের চেহারার ক্ষেত্রেও ঘটে একই ঘটনা। আর আমাদের সেই হাসির মাত্রা কখনো কখনো ছাড়িয়ে যায় সহ্যের সীমা। দুর্বিসহ করে তোলে কারোর জীবন।

আফ্রিকার বছর একুশের তরুণ জানজিমান এলির সঙ্গেও ঘটেছে তেমনই এক ঘটনা। চেহারার অস্বাভাবিকতার জন্য ২১ বছরের জীবন জুড়ে তাঁর ভাগ্যে জুটেছে অনবরত ঠাট্টা, বিদ্রূপ। আশেপাশের মানুষের হাসির খোরাক হয়েছে সে বারবার। এমনকি চেহারার জন্য তাঁকে “বাস্তবের মোগলি” বলে দেগে দিতেও কুন্ঠিত হয় নি কেউ।

আফ্রিকার রোয়ান্ডার বাসিন্দা ওই তরুণ এক দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত যার নাম মাইক্রোসেফালি। এর ফলে ব্যক্তির মাথার আকৃতি দেহের তুলনায় অনেকটাই ছোটো হয়। জন্ম থেকেই এই ব্যাধিতে আক্রান্ত এলি। সে কথা বলতেও পারে না। এহেন অস্বাভাবিক চেহারার কারণে ছোটো থেকেই আশেপাশের কারোর সঙ্গে সেভাবে মিশতে পারে নি এলি। বেশিরভাগ সময়ই সে কাটিয়েছে জঙ্গলে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, এলির জন্মের আগে তার মায়ের আরও ৫টি সন্তান হয়েছিল, কিন্তু কেউই বাঁচে নি। তাঁর মা জানিয়েছেন কীভাবে ছোটো থেকে তাঁর ছেলেকে অদ্ভুত চেহারার জন্য সকলে মিলে অপদস্থ করেছে। শুধু তাই নয়, জন্ম থেকেই বোবা এবং কালা হওয়ায় কখনো স্কুলে ভর্তি হতেও পারে নি এলি।

আফ্রিকার একটি টিভি চ্যানেল ‘আফ্রিমাক্স টিভি’-র তরফ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এলিকে সাহায্য করার। এলি এবং তাঁর পরিবারকে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে ওই টিভি চ্যানেল ‘GoFundMe’ নামের একটি পেজ চালু করেছে।

জানা গেছে, এলির বাবা নেই। একা মায়ের কাছেই সে মানুষ হয়েছে। তাঁর মায়ের বিশেষ সামর্থ্য নেই। অত্যন্ত দারিদ্র্যের মধ্যে দিন কাটে তাদের। এমনকি পেটের তাড়নায় কখনো কখনো জঙ্গলে গিয়ে ঘাস খেয়েও দিন কাটায় এলি। তাদের জীবনে কিছুটা হাসি আনার জন্য নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ওই আফ্রিকান টিভি চ্যানেল। ইতিমধ্যে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার কাছাকাছি তারা জোগাড় করে ফেলেছেন বলেও জানা গেছে চ্যানেল সূত্রে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close