দেশবিনোদন

সোনুর পর সাহায্যের হাত জ্যাকলিনের, অভুক্ত ২০টি পরিবারের তিন বছরের দায়িত্ব নিলেন তিনি

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ করোনা রুখতে প্রয়োজন হার্ড ইমিউনিটির। তবে যাদের পাত শুন্য পরে থাকে তাদের হার্ড ইমিউনিটির সুযোগ কোথায়? সেই কথা ভেবেই এবার দুঃস্থ, অভুক্ত পরিবারদের ভরণপোষণের উদ্দেশ্যে এগিয়ে এলেন অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফ্রাননান্দেজ। করোনা মহামারীর সময়ে মহারাষ্ট্রের দুটি গ্রামের প্রায় ১,৫০০ মানুষের দায়িত্ব নিতে চলেছেন অভিনেত্রী।

সংবাদমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জ্যাকলিন জানান, মহারাষ্ট্রের দুটি গ্রাম পাথরদি এবং সাকুরের ১,৫০০ মানুষের তিন বছরের দায়িত্ব নিতে চলেছেন তিনি। তাদের মধ্যে অনেকেই অভুক্ত ভাবে দিন কাটান, তাই তাদের অন্ন সংস্থানের দায়িত্ব নেবেন জ্যাকলিন। পাশাপাশি মহিলাদের স্বাস্থ্য সচেতনতার দিকটিও নিশ্চিত করা হবে। সদ্যজাত সন্তানদের পালনে যাতে পরিবারগুলোর কোনো অসুবিধা না হয়, সেজন্য যাবতীয় সাহায্য দান করবেন তিনি।

এবিষয়ে তিনি বলেন, ” বহুদিন ধরেই তিনি ভাবছিলেন যে মহামারির জেরে খুবই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে আমরা সকলে যাচ্ছি। আমাদের মধ্যে কিছু জনের সামর্থ থাকলেও। সমাজের একাংশ তাদের সামান্য প্রয়োজনটুকু জোগাড় করতেও এই সময়ে অক্ষম।”

সেই সূত্রেই তাঁদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে, প্রায় ২০টি পরিবারের খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার দায়িত্ব নেওয়া হয়েছে। তাঁদের অপুষ্টি কাটিয়ে তোলার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে এটাও উল্লেখ করেন যে প্রায় ২০টি কিচেনে তৈরী করা হয়েছে যেখানে তাঁদের খাবার তৈরী করা হবে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close