রাজ্যমহানগরহেলথ

মাঝ রাস্তায় এম্বুলেন্স ফেলে চলে গেল প্রাক্তন স্বাস্থ্য মন্ত্রীকে, ফের অব্যবস্থার নজির বাংলায়

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বিশ্ব জোড়া করোনা মহামারীর দাপটে কার্যত নাজেহাল সাধারণ মানুষ। এই মারণ ভাইরাস গত এক বছর যাবৎ শুধু যে লক্ষ লক্ষ মানুষের প্রাণ কেড়েছে তাই নয়, ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে মানুষের দৈনন্দিন জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ। আর সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রকট হয়েছে ভারতের মতো দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার বেহাল দশা।

করোনা আবহে খাস কলকাতার বুকে ফের সামনে এল স্বাস্থ্য দপ্তরের গাফিলতির চরম নিদর্শন। করোনা রোগীদের প্রতি হাসপাতালের অবহেলার সাক্ষী থাকলেন স্বয়ং রাজ্যের প্রাক্তন স্বাস্থ্য মন্ত্রী পার্থ দে। করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরার সময় মাঝপথেই তাঁকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিলেন অ্যাম্বুলেন্স চালক। বললেন, “এখান থেকে আপনি হেঁটে হেঁটে বাড়ি যান।” রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবার এহেন নিদর্শনে স্তম্ভিত ৮০ বছরের প্রবীণ পার্থ দে এবং তাঁর পরিবারের লোকজন।

সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে বালিগঞ্জ ফাঁড়ি এলাকায়। এদিন করোনা মুক্ত হয়ে বেলেঘাটা আইডি থেকে বাড়ি ফিরছিলেন প্রাক্তন স্কুল শিক্ষা মন্ত্রী এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রী পার্থ দে। বরাবরই প্রচারবিমুখ পার্থ বাবু অ্যাম্বুলেন্স চালককে নিজের পরিচয় দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি। তাঁর মেয়ে সরকারি চিকিৎসক ডা: প্রপা দে জানিয়েছেন, “অসুস্থ শরীরে ৮০ বছর বয়সে করোনা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাবা যেভাবে হাঁটতে হাঁটতে বাড়ি এলেন, আমি এবং আমার মা তাতে খুবই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছি।” শুধু তাই নয়, ডাঃ প্রপা দের আরো অভিযোগ, “প্রাক্তন স্বাস্থ্য মন্ত্রীর সঙ্গে যদি এই ধরণের ঘটনা ঘটে, সাধারণ মানুষের সঙ্গে কি ঘটছে ভাবলেই শিউরে উঠছি।”

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেও অভিযোগ জানান পার্থ বাবুর কন্যা। কোন ওষুধ কখন খেতে হবে, তাও পরিষ্কার করে জানায় নি হাসপাতাল।এছাড়া ছুটির পর তাঁদের জানানো হয় হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সে বাড়ি পাঠানো হবে পার্থ বাবুকে। কিন্তু সেখানেও হয়রানির শিকার হন তিনি। এই ঘটনায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর এবং বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের সুপারের কাছে পার্থ বাবুর পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close