দেশ

যোগীর পর এবার হায়দ্রাবাদের “নবাবী চাল” ঘোচানোর ডাক অমিত শাহেরও

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: কিছুদিন আগেই ফের নাম পরিবর্তনের ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তবে এবার আর উত্তর নয়, তাঁর নজর পড়েছে দক্ষিণ ভারতে। নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে হায়দ্রাবাদকে “ভাগ্যনগর”-এ পরিণত করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তাঁর সুরে সুর মিলিয়েই এবার হায়দ্রাবাদের ” নবাবী চাল” ঘুচিয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিলেন বিজেপি নেতা অমিত শাহ।

এদিন হায়দ্রাবাদে প্রচারে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সরাসরি দাবি করেন, সে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল টিআরএস বা তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি , অল ইন্ডিয়া মজিস-ই- ইত্তেহাদ মুসলিম বা মিমের সঙ্গে গোপনে আঁতাত গড়ে তুলেছে। তাঁর কথায়, মিমের সঙ্গে টিআরএস-এর কোনো জোট তৈরি হলে আমাদের তাতে কোনো সমস্যা নেই, কিন্তু সেটা গোপন করা হচ্ছে কেন? মিমের সঙ্গে জোটকে স্বীকার করার দম নেই টিআরএস-এর?” বস্তুত, হায়দ্রাবাদ মিউনিসিপ্যাল করপোরেশনের নির্বাচন আসন্ন। সেই সূত্রেই সেখানে প্রচারে গিয়ে সাংবাদিকদের সামনে একথা বলেন অমিত শাহ।

হায়দ্রাবাদে এবার মানুষ বিজেপিকে সুযোগ দেবেন, সে বিষয়ে আশাবাদী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বিজেপি ক্ষমতায় এলে হায়দ্রাবাদের প্রাচীন নবাবী চাল ঘুচিয়ে দেওয়ার আশ্বাসও দেন তিনি। তিনি বলেন, “হায়দ্রাবাদের যে উন্নয়ন হওয়ার কথা ছিল, টিআরএস আর মিম তার কিছুই করে উঠতে পারে নি। সম্প্রতি বন্যায় হায়দ্রাবাদের প্রায় ৭ লক্ষ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গত ৬ বছরে বন্যা প্রতিরোধের উপযোগী একটাও উদ্যোগ গ্রহণ করে নি টিআরএস বা মিম।হায়দ্রাবাদের বন্যার ট্রাডিশন যাতে ঘুচে যায় আমরা সে ব্যবস্থা করব।” এরপরেই নবাবী চাল ঘোচানোর কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। “আমাদের একটা সুযোগ দিন, আমরা হায়দ্রাবাদের নবাবী চাল ঘুচিয়ে দেব, হায়দ্রাবাদকে আধুনিক শহর বানিয়ে তুলব, হায়দ্রাবাদকে আমরা প্রকৃত গণতান্ত্রিক শাসনের দিকে নিয়ে যেতে চাই”, বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দুদিন আগেই ভারতীয় জনতা পার্টির অপর নেতা যোগী আদিত্যনাথ হায়দ্রাবাদের নাম পরিবর্তনের ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। হায়দ্রাবাদের নামে যে ইসলাম ছোঁয়া আছে, তা সরিয়ে তিনি নতুন নামকরণ করতে চেয়েছিলেন “ভাগ্যনগর”। একই ভাবে এলাহাবাদের নাম পরিবর্তন করে ” প্রয়াগরাজ” রেখেছেন তিনি। এর পরেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এহেন বক্তব্য নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close