খবররাজ্য

‘ব্যাপক ভোট হবে’, জেলে থেকেও পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে আশার বাণী কেষ্টর

মহানগর বার্তা ডেস্ক:গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে বীরভূমের দাপুটে নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে(Anubrata Mondal)।আসানসোল বিশেষ সংশোধনাগারেই ঠাঁই হয়েছে বীরভূমের ‘বেতাজ বাদশা’র। জেলে থাকলেও আসন্ন পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে আশাবাদী অনুব্রত(Anubrata Mondal)। আসানসোল থেকে বিধাননগর এমপি এমএলএ আদালতে আসার পথে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বললেন, পঞ্চায়েত ভোট “ব্যাপক হবে”।পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে তাঁর এই মন্তব্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এদিন অনুব্রত মণ্ডল(Anubrata Mondal) জানান, তাঁর শরীর ভালো নেই। দলীয় কর্মীদের দলের হয়ে কাজ করার কথা বলেন তিনি। বলেন, “দলীয় কর্মীদের বলব দলের হয়ে কাজ করুন

এদিন তাঁকে কড়া পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে আদালতে নিয়ে আসা হচ্ছে। সকাল সাড়ে ছয়টার মধ্যে তাঁকে সংশোধনাগার থেকে বার করে গাড়িতে তোলা হয়। গোটা রাস্তাজুড়েই ছিল কড়া পুলিশি নিরাপত্তা।

উল্লেখ্য,মঙ্গলকোটের এক সিপিআইএম কর্মীকে বোমা মারার ঘটনায় তলব করা হয়েছে অনুব্রত মণ্ডলকে(Anubrata Mondal)।২০১০ সালে ৫ মার্চ মঙ্গলকোটের লাখুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের মল্লিকপুর গ্রামে বোমায় আহত হন সিপিআইএম কর্মী কেবুলাল শেখ। সেদিন তিনি সন্ধ্যায় দলীয় কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিলেন। পিছন থেকে তাঁকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়া হয়। বোমায় গুরুতর জখম হন তিনি। কেবুলাল ছিলেন তৎকালীন সিপিএম-এর মঙ্গলকোটের দাপুটে প্রতাপ নেতা ডাবলু আনসারির ঘনিষ্ঠ।

আরও পড়ুন: ৫৭০ ভরির গয়না এখন অতীত, জেলে নকুলদানা দিয়ে কালীপুজো সারলেন কেষ্ট

যে সময় এই ঘটনাটি ঘটেছিল, তখন মঙ্গলকোট ও কেতুগ্রামের রাজনৈতিক পরিস্থিতি অত্যন্ত টালমাটাল। এলাকায় চরম রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছিল। বোমার আঘাতে কেবুলালের একটি হাত উড়ে যায়। এই ঘটনায় সেই সময় তৃণমূলের বেশ কয়েকজন নেতার নাম জড়ান। তাঁর মধ্যে অনুব্রত প্রধান। অনুব্রত মণ্ডল ছাড়াও শেখ শাহনাওয়াজ,তাঁর ভাই কাজল শেখ, আজাদ মুন্সি ও অনুব্রত ঘনিষ্ঠ কেরিম খান-সহ ১৫ জনের নামে মঙ্গলকোট থানায় অভিযোগ দায়ের করে সিপিআইএম।

আরও পড়ুন: গান্ধীজির পর নরেন্দ্র মোদীই দেশের মানুষের মন বোঝে, দাবি রাজনাথ সিং এর

প্রথমদিকে এই মামলা কাটোয়া আদালতে বিচারাধীন ছিল। পরে এমপি ও এমএলএ-দের জন্য কলকাতার বিধান নগরে বিশেষ আদালত গঠন করা হলে, এই মামলাটিকে সেখানে পাঠানো হয়। আজই এই মামলার শুনানি রয়েছে। যেখানে জীবিত থাকা অভিযুক্তরা হাজিরা দেবেন আদালতের নির্দেশে।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close