আন্তর্জাতিক

মারা আর দোনা, আর্জেন্টিনার যমজ বোনের মধ্যেই বেঁচে আছেন ফুটবলের ঈশ্বর!

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: অভিশপ্ত ২০২০ সালের মৃত্যু মিছিলকে অব্যাহত রেখে, আর্জেন্টিনার সঙ্গে সঙ্গে সমস্ত ফুটবল দুনিয়াকে কাঁদিয়ে চিরবিদায় নিয়েছেন ‘ফুটবলের ঈশ্বর’ দিয়েগো মারাদোনা। তাঁর হ্যান্ড অফ গড অবশেষে হাত মিলিয়েছে পরপারের ঈশ্বরের সঙ্গে। কিন্তু কিংবদন্তির আচমকা এই মৃত্যুকে এখনও যেন মেনে নিতে পারেনি ফুটবল দুনিয়া।

‘ঈশ্বর’-এর মৃত্যুতে কার্যত শোকে পাথর হয়ে গেছে আর্জেন্টিনা। মারাদোনার বিদায় বেলায় তাদের হাহাকার , চোখের জলের সাক্ষী থেকেছে গোটা বিশ্ব। তবে এই মৃত্যু শোক যেন কিছুটা প্রশমিত হয় রাজধানী বুয়েনোস এয়ারসের রতুন্দো পরিবারের অন্দরমহলে ঢুঁ মারলে। সেখানে গেলে দেখা মেলে জলজ্যান্ত মারাদোনার!

শত শত আর্জেন্টিনাবাসীর মতোই দিয়েগো মারাদোনার অন্ধ ভক্ত ওয়াল্টার রতুন্দো। তবে কিংবদন্তির প্রতি তাঁর মুগ্ধতা এতটাই, যে তিনি নিজের দুই যমজ কন্যার নাম রেখেছেন তাঁর নামে। ৯ বছর বয়সী দুই কন্যার নাম মারা এবং দোনা। ফুটবল প্রেম এবং সর্বোপরি একজন ফুটবলারের প্রতি ভক্তির এই নিদর্শন নিঃসন্দেহে বিস্মিত করে সকলকেই।

ওয়াল্টার জানিয়েছেন, ১৯৯০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে পশ্চিম জার্মানির কাছে ০-১ গোলে হারার পর মারাদোনাকে অঝোরে কাঁদতে দেখেছিলেন তিনি। সেদিন থেকেই তিনি ঠিক করে রেখেছিলেন তাঁর দুই মেয়ে হবে, আর তাদের নাম তিনি রাখবেন মারা আর দোনা। নিজের স্ত্রীকে জানিয়েওছিলেন সে কথা। এ ব্যাপারে মারা রতুন্দোর প্রতিক্রিয়া, “আমার নামটা আমার খুব পছন্দ, তার চেয়েও বেশি পছন্দ সেই কারণটা যে কারণে এই নামে আমায় ডাকা হয়।” বলা বাহুল্য, মারাদোনার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তাদের ছোট্ট পরিবারেও।

আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো মারাদোনা গত ২৫ নভেম্বর বুধবার কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। মৃত্যু কালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। তাঁর মৃত্যুতে কার্যত শোকস্তব্ধ ক্রিড়াজগৎ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close