মহানগর

বিজেপির নবান্ন অভিযানকে ঘিরে উত্তাল শহর, ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা, লাঠিচার্জ পুলিশের

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক:বিজেপির নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার শুরু হয়ে গেল শহরে। হেস্টিংস মোড়ে মিছিল আটকাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। হাওড়া ময়দানেও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।সেখানে এক বিজেপি কর্মীর কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে, এলাকায় বোমাও পড়েছে বলে দাবি পুলিশের।

চার প্রান্ত থেকে নবান্নের উদ্দেশ্যে তাঁদের এই মিছিলকে আটকানোর প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল আগেই। জায়গায় জায়গায় ব্যারিকেড তৈরি করে কড়া হাতে মিছিল দমনের জন্য তৈরি হয়েছিল পুলিশ প্রশাসন। বেলা বাড়তেই তাই পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, লাঠিচার্জের খবর আসতে থাকে শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে।

হাওড়ার দুটি জায়গা থেকে মিছিল নবান্নের দিকে এগোয়। সাঁতরাগাছি বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি মিছিলের নেতৃত্বে আছেন রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় ও সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। একই জায়গা থেকে আর একটি মিছিলের নেতৃত্ব দেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এবং বিজেপির যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য।এছাড়া, মুরলীধর সেন লেনে রাজ্য বিজেপির সদর দফতর থেকে মিছিলের নেতৃত্ব দেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।হেস্টিংস থেকে অন্য একটি মিছিলের নেতৃত্বে আছেন মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

যদিও ইতিপূর্বেই স্যানিটাইজেশনের জন্য আজ ও কাল দুদিন নবান্ন বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। শহর জুড়ে তৈরি হয়েছে নিরাপত্তার বজ্র আঁটুনি। অভিযোগ, ধূলাগড়, ডানকুনিতে বিজেপি কর্মীদের বাস আটকে দেয় পুলিশ, অবরোধের পর লাঠিচার্জেরও অভিযোগ উঠেছে। বিক্ষিপ্ত উত্তেজনায় একাধিক এলাকায় যানজট তৈরি হয়েছে বলে খবর।

সাঁতরাগাছির মিছিল ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলে তাঁদের ওপর রঙিন জল স্প্রে করা হয়। এরপর বিজেপি সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করতে ছোড়া হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল। কয়েকজন বিজেপি সমর্থক আহত হন বলে জানা গেছে। সবমিলিয়ে প্রত্যাশিত ভাবেই নবান্ন অভিযানকে ঘিরে শহর এখন উত্তাল।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close