রাজ্য

গেরুয়া শিবিরে ভাঙন, বিজেপি কর্মীরাই কুশপুতুল পোড়ালেন নিজেদের জেলা সভাপতির

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: ২০২১ সালে রাজ্যের কূর্শি দখল যখন বিজেপির অন্যতম মূল লক্ষ্য, ঠিক তখনই দলের এক মণ্ডল সভাপতি পরিবর্তন ঘিরে তাদের দলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে এলো। এমনকি বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সাংগঠনিক সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রের কুশপুত্তলিকা দাহ করলেন বিক্ষুব্ধ দলীয় কর্মীরা। বাঁকুড়া-খাতড়া রাজ্য সড়কের উপর ইন্দপুর জয়েন্ট মোড়ে ঘটনা।

বিক্ষুব্ধ ঐ কর্মীদের অভিযোগ, ‘দুর্নীতিবাজ’ বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সাংগঠনিক সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র সম্পূর্ণ ব্যক্তিকারণে কারণে দলের ইন্দপুর-১ মণ্ডল সভাপতি পদ থেকে ‘একনিষ্ট কর্মী’ ও দীর্ঘদিনের ‘পুরাণো বিজেপি কর্মী বিবেকানন্দ সাহানাকে অপসারিত করা হয়েছে। সেই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে তারা এই কর্মসূচী নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। জেলা বিজেপি সভাপতির কুশপুত্তলিকা দাহের পাশাপাশি প্রাক্তন মণ্ডল সভাপতি বিবেকানন্দ সাহানার অনুগামীদের ‘বাঁকুড়া জেলা সাংগঠনিক সভাপতি বিবেক পাত্র মূর্দাবাদ’ এমন স্লোগান দিতেও শোনা যায়। যদিও এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি দলের কর্মীদের তরফে মণ্ডল সভাপতি পদ থেকে ‘অপসারিত’ হওয়া দাবি করা বিবেক সাহানা স্বয়ং।

দলের জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে এদিন এই কর্মসূচীতে নেতৃত্ব দেওয়া বিজেপির ইন্দপুর-১৩ শক্তিকেন্দ্রের শক্তি প্রমুখ রাণা তন্তুবায় বলেন, তিনটি অঞ্চলকে না জানিয়ে মণ্ডল সভাপতির পদ থেকে অন্যায়ভাবে বিবেকানন্দ সাহানাকে সরানো হয়েছে। এদিন জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রের কুশপুত্তলিকা দাহের পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে আন্দোলন আরো তীব্র করা হবে বলে তিনি জানান।

এবিষয়ে বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্রকে টেলিফোন করা হলে তিনি ‘পারিবারিক কাজের’ অজুহাত দেখিয়ে এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি।

 

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close