মহানগররাজনীতি

“শান্তিপূর্ণ মিছিলে বোমাবাজি করেছে পুলিশ”, হাওড়া ময়দানে দাবি বিজেপির

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: তাঁদের মিছিল শান্তিপূর্ণই ছিল। বাইরের গুন্ডারা এসে বোমা ছুঁড়েছে, নবান্ন অভিযানের পথে এমনটাই দাবি করল বিজেপি নেতৃত্ব। হাওড়া ময়দান পুলিশ বিজেপি সংঘর্ষে কার্যত রণক্ষেত্রে পরিণত হলে এহেন দাবি করেন তাঁরা। তাঁদের অভিযোগের তির আছে পুলিশের দিকেও।

বস্তুত বিজেপির নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে আজ উত্তাল সারা শহর। জায়গায় জায়গায় পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সংঘর্ষে থমকে গেছে স্বাভাবিক জনজীবন। হাওড়া ময়দানের কাছে মিছিল পৌঁছোলে পুলিশ বিজেপি সংঘর্ষ চরমে ঠেকে। মিছিল আটকাতে অতি সক্রিয় হয় পুলিশ। ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল। হাওড়া ময়দান থেকে মল্লিক ফটক যাওয়ার যে গলি, সেখানেও চলে পুলিশি নজরদারি। পুলিশকে লক্ষ করে উড়ে আসে ইট পাটকেল। এমনকি বোমাবাজিরও অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। হাওড়া ময়দানে এক বিজেপি কর্মীর কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শুরু হয়েছে ধরপাকড়।

এরই মাঝে পুলিশের সঙ্গে কথা বলতে যায় বিজেপি সমর্থকদের ৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। অন্যদিকে ক্রমাগত স্লোগান চালিয়ে যাচ্ছেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। বোমাবাজি ও আগ্নেয়াস্ত্রের অভিযোগ তাঁরা সম্পূর্ণ রূপে অস্বীকার করেছেন। বরং তাঁরা দোষ চাপিয়েছেন পুলিশের উপরেই। বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ, মিছিল শান্তিপূর্ণভাবেই হচ্ছিল। পুলিশকর্মী আর বাইরের গুন্ডারাই বোমাবাজি করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করতে চাইছে। পরিকল্পনা মাফিক একাজ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, আজ বিজেপির নবান্ন অভিযানের দিন নবান্ন বন্ধ। আজ ও কাল দুদিন স্যানিটাইজেশনের জন্য নবান্ন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। বন্ধ নবান্নের উদ্দেশ্যেই আজ যাত্রা করেছে বিজেপির এই মিছিল। মিছিল প্রতিহত করার জন্য গতকাল থেকেই প্রস্তুতি নিয়েছিল পুলিশ প্রশাসন। শহর ঘিরে ফেলা হয়েছিল নিরাপত্তার বজ্র আঁটুনিতে। যথারীতি আজ বিজেপির সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে উত্তাল হয়েছে শহর।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close