দেশ

ফের সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন, পাকিস্তানের গুলিতে শহীদ হলেন ভারতীয় তরুণ সেনা জওয়ান

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: ভারত পাকিস্তানের অবিরাম দ্বন্দ্ব আর তার জেরে সীমান্তে প্রতিনিয়ত সংঘর্ষ যে কত তাজা প্রাণ কেড়ে নেয়, কত সচল জীবন অকালে থামিয়ে দেয়, আরো একবার তার সাক্ষী থাকল কাশ্মীর উপত্যকা অঞ্চল। গত কয়েক দিন ধরেই জম্মু কাশ্মীর সীমান্ত অঞ্চলে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে আক্রমণ শুরু করেছে পাক সেনাবাহিনী। তার জেরে আরো একবার প্রাণ হারালেন ভারতীয় এক সেনা কর্মী।

বিএসএফ সূত্রের খবরে জানা গেছে, শনিবার গভীর রাতে ফের সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে কাশ্মীর সীমান্তে অতর্কিতে হামলা চালায় পাকিস্তান। পাল্টা উত্তর দেয় ভারতও। তবে দুই দেশের এই গোলাগুলির লড়াইয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ভারতীয় সেনার কর্মচারী সংগ্রাম পাটিল।

সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে, গত রাতে সংঘর্ষ বিরতির এই ঘটনা ঘটেছে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার নৌসেরা সেক্টরে। মৃত পাটিল সংগ্রাম শিবাজি বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের অধীনে কর্মরত হাবিলদার। পাক সেনার অতর্কিত হামলার বলি হয়েছেন তিনি। বিএসএফ জানিয়েছে, গত রাতে পাকিস্তানের তরফ থেকে গুলি চললে তার পাল্টা জবাব দেয় ভারত। বেশ কিছুক্ষণ ধরে চলে এই গুলির লড়াই। আর তাতেই প্রাণ যায় সংগ্রাম পাটিলের। এই নিয়ে চলতি বছরে পাক সেনার তরফে মোট ৩২০০ বার যুদ্ধ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করা হয়েছে বলেও দাবি সেনা সূত্রের খবরে।

সেই ১৯৯৯ সালে ভারত পাকিস্তানের মধ্যে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। কিন্তু তা যে কেবল খাতায় কলমেই সীমাবদ্ধ এই ক-বছরে বারবার সেই বার্তাই দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। পরিসংখ্যান অনুযায়ী চলতি বছরে পাকিস্তানের সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের ফলে ভারতের মোট ৩০ জন সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছে শতাধিক।

পাক সেনাদের সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের ঘটনা গত কয়েকদিন ধরে অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। গত সপ্তাহেই পাক হানায় ৬ জন সাধারণ মানুষ সহ মোট ১১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। মৃতদের মধ্যে ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের নদীয়ার বাঙালি জওয়ান সুবোধ ঘোষও। সেই দলেই নাম লিখিয়ে এবার শহীদ হলেন সংগ্রাম পাটিল।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close