দেশ

এই নৃশংসতার শেষ কোথায়? হাথরাস কান্ডে ক্ষোভ প্রকাশ কোহলি থেকে কঙ্গনার

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: গত ১৫ দিন ধরে একটানা দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জাব লড়ে অবশেষে হার হল উত্তর প্রদেশের হাথরাস গ্রামের গণধর্ষিতা তরুণী মনীষা বাল্মীকির। মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করল সে। এই ঘটনার নৃশংসতায় নিন্দার ঝড় ওঠে সারা দেশ জুড়ে। দোষীদের যোগ্য শাস্তির দাবিতে ছেয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। প্রতিবাদে সরব হন একের পর এক জনপ্রিয় ও বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা।

 

এই নিন্দনীয় ঘটনায় বলিউড তারকা অভিষেক বচ্চন,কঙ্গনা রানাওয়াত থেকে শুরু করে অক্ষয় কুমার, রিচা চাডা ও আরো অনেকে। ক্রীড়া জগতের প্রতিবাদীদের মধ্যে আছেন ব্যাডমিন্টন তারকা সাইনা নেহওয়াল, ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি, ক্রিকেটার সুরেশ রায়না প্রমুখ।

এছাড়াও প্রতিবাদে গলা তুলেছেন অভিনেতা অক্ষয় কুমার। অভিনেতা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে এদিন ট্যুইট করে বলেন, “হাথরাস গণধর্ষণের নৃশংসতায় অসহায় হতাশ লাগছে। এর শেষ কোথায়? আমাদের আইন এতটাই কঠিন হওয়া উচিত যাতে ধর্ষণের চিন্তাটুকুও ভয়ে কাঁপতে বাধ্য করে দুষ্কৃতীদের। ধর্ষকদের ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি।”

এই নির্যাতিতার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে কঙ্গনা রানাওয়াত ট্যুইটে ধর্ষকদের প্রকাশ্যে গুলি করারও দাবি জানান। তিনি বলেছেন, “ভারতের জন্য লজ্জাজনক একটা দিন। রোজ বাড়তে থাকা এই অপরাধের সমাধান কোথায়?”। প্রতিবাদ জানাতে পিছিয়ে থাকেনি ক্রীড়া মহলও। ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলিও নিজের ক্ষোভ চেপে রাখতে পারেন নি। “হাথরাসের ঘটনা অমানবিকতার চরম সীমাকেও লঙ্ঘন করেছে। আশা করি এই ঘৃণ্য অপরাধীদের উপযুক্ত সাজা হবে।” ট্যুইট করেন কোহলি। পাশাপাশি চুপ করে থাকেননি ফারহান আখতার, মীরা চোপড়া, সুরেশ রায়নার মতো তারকারাও।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ই সেপ্টেম্বর চার উচ্চ বর্ণের লোকের লালসার স্বীকার হয় উনিশ বছর বয়সী এক দলিত তরুণী। ধর্ষণের পর আহত, পক্ষাঘাতগ্রস্ত অবস্থায় তাকে ফেলে রেখে চলে যায় দুষ্কৃতীরা।অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে যোগী রাজ্যে দলিত তরুণীর উপর এহেন পাশবিক অত্যাচার যেন মনে করিয়ে দিয়েছে নির্ভয়াকে। দোষীদের যোগ্য শাস্তির জন্য এখন মুখিয়ে আছে গোটা দেশ।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close