মহানগর

করোনার হানা মুখ্যমন্ত্রীর অন্দরেও, অবশেষে মানলেন রাজ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণের ঘটনা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক:এবার স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির অন্দরে হানা দিল করোনা। মারন ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির পরিচারক। এদিন হাথরাস কান্ড নিয়ে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় ভাষণ দিতে গিয়ে একথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং। পাশাপাশি তিনি এও স্বীকার করেন যে পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভাইরাসের কমিউনিটি স্প্রেড বা গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে।

হাথরাসে দলিত তরুণীর গণধর্ষণ ও মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে এখন তোলপাড় গোটা দেশ। উত্তর প্রদেশের যোগী সরকারের অপদার্থতা নিয়ে সরব হয়েছে প্রায় সমস্ত বিরোধী দল গুলি। দেশের নানা প্রান্তে বিরোধী দল গুলির আহ্বানে আয়োজিত হয়ে চলেছে একের পর এক প্রতিবাদ সভা। সেই সূত্রেই উত্তর প্রদেশ তথা কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয় গান্ধী মূর্তির পাদদেশে। হাথরাসের অমানবিক ঘটনার প্রতিবাদে এদিন পথে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গান্ধী মূর্তির পাদদেশের প্রতিবাদ মঞ্চ থেকে বিজেপিকে তুলোধনা করার পাশাপাশিই তিনি এদিন তাঁর বাড়ির অন্দরেও করোনার হানার কথা জানান। তিনি বলেন, “আমার বাড়িতে আমরা তিনজন থাকি। একটি ছেলে রয়েছে, আমি গেলে ও চা করে দেয়। কাল বাড়ি গিয়ে দেখছি, চা দেওয়ার কেউ নেই। শুনলাম, ওরও করোনা হয়েছে।”

নিজের বাড়ির অন্দরে মারন ভাইরাসের প্রবেশের পরেই মুখ্যমন্ত্রী স্বীকার করেন ভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণের কথা। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন, করোনায় কমিউনিটি স্প্রেড হয়ে গেছে। সেই কারণেই যারা সকলের থেকে আলাদা থাকছেন, তাঁদেরও করোনা হয়ে যাচ্ছে। নিজের বাড়ির প্রসঙ্গ তুলেই তিনি বলেন, “আমার বাড়ির ছেলেটি তো কোথাও যেত না। ওদের সবসময় আলাদা রাখা হত। তবুও ওর করোনা হয়ে গেল।”

যদিও ভারতে করোনা ভাইরাসের অত্যধিক সংক্রমণের জন্যে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন মমতা। তিনি এদিন বলেন, “আমরা মিছিল, মিটিং করছি না সেভাবে। কিন্তু বিজেপি মিটিং, মিছিল করে যাচ্ছে। দাঙ্গা লাগাচ্ছে, করোনা ছড়িয়ে যাচ্ছে। অথচ অনেক রাজ্যে কেউ তো বাইরেই বেরোচ্ছে না। আমরা তো সবসময় রাস্তায় রয়েছি। কাজ করছি।” সেই সঙ্গে তিনি আরো বলেন, “করোনা মহামারী চলছে। আমার দলের নেতারাও মারা গিয়েছেন। পুলিশকর্মী, সাংবাদিকরা প্রাণ হারিয়েছেন। কত মানুষ মারা যাচ্ছেন। কমিউনিটি স্প্রেড হয়ে গেছে এখন করোনার।”

এদিন করোনাকে জব্দ করেই বিজেপির বিরুদ্ধে ব্লকে-ব্লকে আন্দোলন গড়ে তোলার ডাক দেন মুখ্যমন্ত্রী। গোষ্ঠী সংক্রমণের কথা স্বীকার করলেও মানুষকে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হতে মানা করেছেন তিনি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close