রাজ্য

সৎকার সম্পন্ন, শ্রাদ্ধের আগে দিব্যি হেঁটে বাড়ি ঢুকলেন করোনায় ‘মৃত’ রোগী, চাঞ্চল্য এলাকায়

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: তাঁর শ্রাদ্ধ উপলক্ষ্যে বাড়ির ছাদে প্যান্ডেল করা হয়েছিল, হয়েছিল বাকি আয়োজনও, কিন্তু শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠান করে আর আত্মার শান্তির ব্যবস্থা করা হল না। জলজ্যান্ত অবস্থাতেই দিব্যি হেঁটে শ্রাদ্ধের আগে বাড়ি ফিরে এলেন এক ব্যক্তি। আর সেই সঙ্গে অতিমারী আক্রান্ত রাজ্যের স্বাস্থ্য কাঠামোকেও দাঁড় করিয়ে দিলেন একাধিক প্রশ্নের মুখে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, কিছুদিন আগেই উত্তর ২৪ পরগণার এক ব্যক্তি করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন, তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল হাসপাতালে। কিন্তু ভর্তির দুদিনের মাথায় হাসপাতালের তরফ থেকে তাঁর বাড়িতে জানানো হয় করোনায় মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এমনকি মৃত দেহ সৎকারও করে তাঁর বাড়ির লোক। এরপরই শোকের আবহে যথারীতি শ্রাদ্ধের আয়োজন করা হয় করোনায় ‘মৃত’ ওই ব্যক্তির।

জানা গেছে, পঁচাত্তর বছরের বয়সী ওই ব্যক্তির নাম শিবনাথ ব্যানার্জী। তিনি উত্তর ২৪ পরগণার বিরাটির বিদ্যাসাগর সরণি এলাকার বাসিন্দা। গত ১১ নভেম্বর কারোনাতে আক্রান্ত হয়ে তিনি জি এন আর সি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু হাসপাতাল থেকে ১৩ তারিখ বাড়ির লোকের কাছে খবর আসে করোনাতে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। প্রথা অনুযায়ী শ্রাদ্ধের দিন ঠিক হয় রবিবার অর্থাৎ আগামীকাল। তবে সমস্ত আয়োজনকে মিথ্যে করে দিয়ে গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার বাড়ি ফিরে আসেন শিবানাথবাবু।

শুক্রবার হাসপাতালের তরফে ফের তাঁদের বাড়িতে ফোন আসে। জানানো হয় সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন শিবনাথ ব্যানার্জী। এমনকি হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চড়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। এই ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা এবং দায়িত্বজ্ঞানহীনতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তাহলে কার মৃতদেহ শিবনাথবাবুর পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল? কোন বাড়িই বা মৃত সদস্যের দেহ হাতে পেলেন না? উঠেছে একাধিক প্রশ্ন। তবে শিবানাথবাবু বাড়ি ফেরায় এখন খুশির হাওয়া বিরাটির বাড়িতে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close