সীমান্ত

কাঁটাতারের সামনে অঝোর কান্না,পাকিস্তানি শিশুকে বাবার হাতে তুলে দিল ভারতীয় সেনা

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ কাঁটাতাঁরের সীমানাতে কিছু কিছু ঘটনা দেখিয়ে দেয় মানবিকতা এখনও বেঁচে আছে। কাঁটাতার দিয়ে আলাদা করা যায়না মানবিকতাকে। কিছুদিন আগেই দাদুর সঙ্গে দেখা করতে কোচবিহারে সীমান্ত পার করে বাংলাদেশ থেকে ভারতে চলে এসেছিলেন একজন কিশোর। ফেরার পথে সে ধরা পড়ে যায়। এবার ফিরোজপুরে ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে বিএসএফের নজরে পড়ে পাকিস্তানের এক শিশু।

শুক্রবার ফিরোজপুরে ভারত-পাক সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ার কাছে দাঁড়িয়ে অঝোরে কান্নাকাটি করছিল বছর তিনেকের এক পাকিস্তানি শিশু। তখন সন্ধ্যা হয়ে গেছিল। ফলে তার বাড়ি কোন দিকে তা ঠাহর করতে পারছিলো না সে। অঝোরে কাঁদতে কাঁদতে শুধুমাত্র বাবার নামটাই বলতে পারছিলো সে, কোনও ঠিকানা বা বাড়ি কিছুই বলতে পারছিল না। আদৌ সে পাকিস্তানের নাকি ভারতের সেটাও বুঝে ওঠা সম্ভব হচ্ছিল না।

শিশুটিকে দেখতে পেয়েই সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধার করে পাকিস্তানি রেঞ্জারকে খবর দেয় বিএসএফ। উভয়পক্ষের মধ্যে একটি ফ্ল্যাগ মিটিংয়ের আয়োজন করা হয় দ্রুত। আলোচনা করে পাকিস্তানি রেঞ্জারদের সহায়তার খুঁজে বের করা হয় শিশুটির বাবাকে। পরে তাকে নিরাপদে তুলে দেওয়া হয় তার বাবার হাতে। উভয় দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর তৎপরতায় এক অনন্য নজির হয়ে থাকলো এই ঘটনা।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close