আন্তর্জাতিক

মিরাকল! মর্গের মধ্যেই বেঁচে উঠলেন ‘মৃত’ রোগী, ছটফট করে উঠলেন যন্ত্রণায়

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাসের প্রকোপে প্রায় বছর খানেক আগে বিশ্ব জুড়ে যে মৃত্যু মিছিল শুরু হয়েছিল তার জেরে দেশে দেশে ভেঙে পড়েছিল স্বাস্থ্য ব্যবস্থাও। বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর সেই বেহাল দশাই দিন দিন আরো বেশি প্রকট হয়ে চলেছে করোনা কালে। চিকিৎসায় অবহেলা, গাফিলতির প্রচুর নিদর্শন উঠে এসেছে এযাবৎ, যা নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন বিশেষজ্ঞ মহল। সেই চিকিৎসায় গাফিলতিরই আরো এক ভয়াবহ নিদর্শন এবার সামনে এল।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা যে রোগীকে মৃত বলে ঘোষণা করে দিয়েছিলেন, সেই রোগীই যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে মর্গের মধ্যে উঠে বসল! জানা গেছে, চিকিৎসকদের গাফিলতির এই চূড়ান্ত নিদর্শনের ঘটনাটি ঘটেছে কেনিয়ায়। ৩২ বছর বয়সী এক যুবককে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করে পাঠিয়েছিলেন মর্গে। সেখানে যথারীতি তাঁর মৃতদেহ সমাহিত করার প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল। কিন্তু তখনই হঠাৎ যন্ত্রণায় কঁকিয়ে উঠে বসেন তিনি।

‘মৃত’ রোগীকে উঠে বসতে দেখে স্বভাবতই বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত মর্গের কর্মীরা। সূত্রের খবর, যুবকের ডান পায়ে ফুটো করছিলেন তাঁরা। সেই ফুটো দিয়েই প্রবেশ করানো হত ফরমালিন। কিন্তু তখনই যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে জেগে ওঠেন ওই যুবক। দ্রুত হাসপাতালে ফেরত পাঠানো হলে চিকিৎসায় সাড়া দেন তিনি। সুস্থ হয়ে ওঠেন।

যুবকের নাম পিটার কিগেন। কেরিচো কাউন্টিতে কাপকাটেট হাসপাতালে তিনি ভর্তি ছিলেন। হাসপাতালের তরফ থেকে অবশ্য চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বারংবার চেষ্টা ও নানা পরীক্ষা নিরীক্ষার পরেও ওই যুবকের দেহে কোনো প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজে পাননি তাঁরা। তার ফলেই যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়েছিল। দেহ পাঠানো হয়েছিল মর্গে। কিন্তু যা ঘটেছে তা মিরাকল ছাড়া আর কিছুই নয়, মত চিকিৎসকদের।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close