রাজ্যরাজনীতি

‘বিজেপিতে গেলে দাউদ ইব্রাহিমও ভালো হয়ে যাবে’, দলবদলকে তীব্র কটাক্ষ দেবাংশুর

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক:আবহাওয়া দপ্তরের খবর বলছে শীতের শুরুতে রাজ্যের পারদ নেমে গেছে অনেকটাই। কিন্তু বাংলার রাজনীতির দিকে চোখ রাখলে তা বোঝার উপায় নেই। একুশের বিধানসভা নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে রাজনৈতিক বাদানুবাদে ততই উত্তাপ ছড়াচ্ছে বাংলার পরিস্থিতিতে। প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগ দানকে নিয়ে বর্তমানে ফের সরগরম পরিস্থিতি।

শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর এদিন একটি বিতর্ক সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের তরুণ নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য। সেখানেই তিনি বিজেপিকে তুলোধুনো করেন। তিনি বলেন, এককালে অন্য দলে থাকাকালীন যে সমস্ত নেতাদের সমালোচনা করেছিল বিজেপি, বর্তমানে তাঁরাই যোগ দিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরে। আর বিজেপি তখন সেই একই মানুষকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন। এ প্রসঙ্গে দাউদ ইব্রাহিমের কথাও তুলে আনেন দেবাংশু ভট্টাচার্য।

https://www.facebook.com/DebangshuBhattacharyaOfficial/videos/3682219105169102/

বিতর্ক সভায় দেবাংশু ভট্টাচার্য অন্যান্য বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্য করে একটি দীর্ঘ তালিকা দেন। এই তালিকায় তিনি সে সমস্ত নেতার নাম তুলে ধরেন যাঁরা একসময় অন্য দলে থাকার কারণে বিজেপির তোপের মুখে পড়েছিলেন, কিন্তু পরে সেই বিজেপিতেই যোগ দিয়েছেন। দেবাংশু বলেন, “নিশি প্রামাণিককেই তো আপনারা গোরু পাচারকারী বলেছিলেন, লোকসভা ভোটে আপনাদের সাথে যোগ দেওয়ার আগে পর্যন্ত। যেমন শুভেন্দু বাবুকে কদিন আগেই নারদা ফুটেজ নিয়ে কথা শোনাতেন।” এরপর শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়, মুকুল রায়, সব্যসাচী দত্ত, সৌমিত্র খাঁ প্রমুখ সকলের দৃষ্টান্ত টেনে আনেন তিনি।

এরপরই বাংলায় বিজেপির নীতি নিয়ে দেবাংশু ভট্টাচার্যের কটাক্ষ, “এরপর তো দাউদ ইব্রাহিমও যোগ দিলে তাকে বলবেন খুব ভালো মানুষ! আমাদের প্রকৃত দেশভক্ত।” বলা বাহুল্য দেবাংশু ভট্টাচার্যের কথায় উত্তেজনা ছড়ায় বিতর্ক সভায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরেই দলের প্রতি অসন্তোষ জানাচ্ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। দলীয় পতাকা ছাড়াই করছিলেন সভা। ক্রমে মন্ত্রীত্ব, বিধায়ক পদ ছাড়ার পর তৃণমূল কংগ্রেস থেকেও ইস্তফা দেন তিনি। তারপরই শনিবার অমিত শাহের সভায় গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close