রাজনীতি

দুর্গাপুজোতে একাধিক নিষেধাজ্ঞা! কিন্তু রামমন্দির ভূমি পুজোতে ৫০০ লোক: দেবাংশু

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ দুর্গাপুজো নিয়ে হাইকোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়ে, এবার তা নিয়ে মুখ খুললেন দেবাংশু ভট্টাচার্য। তৃণমূল কংগ্রেসের এই তরুণ সমর্থক বিরোধীদের বিরুদ্ধে বরাবরই কলম ধরে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী দর্শক শূন্য পুজোকে সমর্থনের পাশপাশিও তা নিয়ে একধিক প্রশ্ন তুলতে দেখা গেল তাঁকে।

এদিন দেবাংশু বলেছেন, রাজ্যে দুর্গাপুজোর আয়োজন করে সরকার চেয়েছিল গরীব মানুষের পাশে দাঁড়াতে। দীর্ঘদিন লকডাউনের ফলে যে সমস্ত খুচরো বিক্রেতারা চরম আর্থিক সংকটে ভুগছিলেন তাঁদের খানিক লাভের মুখ দেখাতেই করোনা বিধি মেনে পুজো করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু হাইকোর্টের আজকের রায়ে তা কার্যত অর্থহীন হয়ে পড়ল। দর্শকহীন পুজোয় সবচেয়ে বড় ক্ষতির মুখ দেখবে তাঁরাই।

এদিন আদালতের রায়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে নিজের ফেসবুক পেজে দশ লাইনের একটি কবিতাও লিখেছেন দেবাংশু। “পুজো আছে মানুষ নেই”- এই কবিতায় তিনি জানিয়েছেন এই পুজোর অর্থহীনতা। এরপর তাঁর বক্তব্য, “প্যান্ডেলের বাইরে থেকে পাঁচটা দিন আগামী কয়েক মাসের রুটি রুজি জোগাড় করার আর সুযোগ নেই… কারণ উৎসবে এবার জনতা নেই।”

পুজো আয়োজনের পিছনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৎ উদ্দেশ্য ব্যক্ত করে তিনি বলেছেন, “দিদি চেষ্টা করেছিলেন মানুষগুলোকে বাঁচাতে। কেউ চাইল না এঁরা বাঁচুক।” শুধু তাই নয়, সেই সঙ্গে এদিন বিরোধী দলগুলোকে এক হাত নিয়েছেন দেবাংশু। নাম না করেই কটাক্ষ করেছেন বিজেপি কিংবা বামপন্থী দলগুলিকে, যাঁরা করোনা আবহে পুজোর অনুমতি দেওয়ার বিরোধিতা করছিলেন। দেবাংশু লিখেছেন, “মানুষ মনে রাখবে, ৫০০ লোক নিয়ে উত্তর প্রদেশের রাম মন্দিরের ভূমি পূজন করা গেলেও ২৫জন করে মানুষের প্রবেশাধিকার খর্ব করে পাশবিক নেত্য করা লোকগুলোকে।” পাশাপাশি বামপন্থী দলগুলোকে ঠুকে তাঁর প্রশ্ন, “মেহনতি মানুষের স্বার্থের কথা বলে সবার আগে তাঁদের বুকের উপর দাঁড়িয়ে পড়া রাজনৈতিক দলটা আগামী দিনে এই মানুষগুলোর চোখে চোখ রাখতে পারবেন তো?”

বস্তুত, আজ বিকেলেই এবছরের পুজো নিয়ে হাইকোর্টের রায় ঘোষিত হয়েছে। করোনা আবহে পুজোর ভিড় নিয়ন্ত্রণের জন্য হাইকোর্ট জানিয়েছে কোনো পুজো মন্ডপেই এবছর দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন না। এই রায় নিয়েই নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শাসকদলের মুখপাত্র ও তরুণ সমর্থক দেবাংশু ভট্টাচার্য।

দেবাংশু ভট্টাচার্জের ফেসবুক পোস্ট: লিঙ্ক

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close