অফবিট

আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় বাজিমাত এই ডাক্তারের, মাত্র ৪০ টাকায় সারিয়ে দিলেন ধোনির হাঁটু ব্যথা

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ হাঁটুর সমস্যা এখন ঘরে ঘরে। ফকির থেকে বাদশাহ সবাই এর কাছে কুপোকাত। আর একবার ধরলে সহজে রেহাই পাওয়াও দুস্কর। এবার সেই হাঁটুর ব্যাথাতেই কাবু ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তণ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। বাইশ গজে তাঁর সামনে গুটিয়ে যেতে হয় বিশ্বের তাবড় খেলোয়াড়দের। এবার হেলিকপ্টার শট মেরে বলকে বাউন্ডারির বাইরে পাঠানো মাহিই গুটিয়ে যাচ্ছেন হাঁটুর ব্যাথায়। একটি হিন্দি দৈনিকের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে প্রাক্তণ ক্যাপ্টেন কুল নাকি দীর্ঘদিন ধরে হাঁটুর ব্যাথায় ভুগছেন। অনেক ডাক্তার দেখিয়েও তার সুরাহা হয়নি। এবার তিনি যে ডাক্তার দেখিয়েছেন তার খরচ শুনেই চমকে গেছেন সবাই।

সেই ডাক্তার নিজের ভিজিট ফী বাবদ নিয়েছেন কুড়ি টাকা এবং ওষুধের জন্য নিয়েছেন কুড়ি টাকা। তিন মাস ধরে বহু ডাক্তার দেখিয়ে এবং ওষুধ খেয়েও যখন হাঁটুর ব্যাথা সারছেনা, তখনই রাঁচি থেকে প্রায় সত্তর কিলোমিটার দূরে জঙ্গলে ঘেরা লাপুংয়ে ডাক্তার দেখাতে গিয়েছিলেন তিনি। এর আগে ধোনির মা-বাবাও এই আয়ুর্বেদিক ডাক্তারের ওষুধ খেয়ে সুস্থ হয়েছেন। সেই সূত্রেই ধোনিও তাঁরই শরনাপন্ন হয়েছিলেন এবং ডাক্তারের ভিজিট ফী এবং ওষুধের দাম মিলিয়ে ক্যাপ্টেন কুলের মোট চিকিৎসাবাবদ খরচ লেগেছে চল্লিশ টাকা।
ওই আয়ুর্বেদিক ডাক্তারের নাম বন্ধন সিং খেরভার। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন “ধোনি যখন এসেছিলেন ওঁকে আমি চিনতে পারিনি। তিনি জানান ক্যালসিয়ামের অভাবের কারণে হাঁটুতে ব্যথা হচ্ছে। আমি কুড়ি টাকার ওষুধ দিয়েছি। আর ফি নিয়েছি কুড়ি টাকা।”

যদিও ওখানে চিকিৎসা করতে আসা বাকিরা ধোনিকে চিনে ফেলেন এবং স্বভাবতই সেলফি তোলার হিরিক শুরু হয়ে যায়। আপাতত দুই মাসের ওষুধ দেওয়া হয়েছে ধোনিকে, তারপরে আবারও তাঁকে আসতে হবে ডাক্তারের কাছে। জানা যাচ্ছে সম্ভবত ক্যালশিয়ামের অভাবেই তাঁর এই হাটুর সমস্যা। তাঁর এই সমস্যার সমাধান লাপুংয়ের এই আয়ুর্বেদিক চিকিৎসাতেই পাওয়া যায় কিনা সেটাই দেখার। তবে নিঃসন্দেহে এখন এই চল্লিশ টাকার চিকিৎসকই ভরসাস্থল হয়ে উঠেছেন ভারতীয় ক্রিকেট টিমের প্রাক্তণ অধিনায়কের।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close