মহানগররাজনীতি

কানহাইয়ার কংগ্রেস যোগে বামপন্থী আন্দোলনে প্রভাব পড়বে না : দীপঙ্কর ভট্টাচার্য

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: গতকালই রাহুল গান্ধীর হাত ধরে সিপিআই ছেড়ে কংগ্রেসে যোগদান করেছেন কানহাইয়া কুমার। বামপন্থী রাজনীতিবীদ হিসেবে জাতীয় মহলে সুখ্যাতি ছিল কানহাইয়ার। জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া সংসদের প্রাক্তন সভাপতি, সিপিআইয়ের জাতীয় কর্মী সমিতির সদস্য কানহাইয়া কুমার গত লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতাও করেছেন সিপিআই-এর টিকিটে। এই হেভিওয়েট বামপন্থী নেতার বাম থেকে ডানে যেতেই কাল থেকে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে রাজনীতি মহলে। এই দলবদল কি বামপন্থার অবক্ষয় নাকি নেহাত সময়ের স্বাক্ষর মাত্র? এই নিয়ে মহানগর বার্তাকে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকার দিলেন সিপিআইএমএল লিবারেশনের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য

প্র:আপনি বা আপনারা এই দলবদলকে সমর্থন করছেন?

উ:দলবদলকে সমর্থন করা না করার কোন প্রশ্ন ওঠে না। কানহাইয়ার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। বামপন্থী আন্দোলনের উপর কোন প্রভাব পড়বে না। কানহাইয়া কংগ্রেসে যোগদান করেছে বলে বাম কর্মীবাহিনীর মধ্যে বামপন্থী আদর্শ ও ইতিহাস ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দেবার নিশ্চয়ই কোন হিড়িক পড়বে না।

প্ৰ:বিহারের রাজনীতিতে এর কোনো প্রভাব পড়বে?

উ: বিজেপির বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যাপক মোর্চা চাই এবং সেখানে অবশ্যই কংগ্রেসের নিজস্ব প্রাসঙ্গিকতা রয়েছে। কানহাইয়া জেএনইউতে বামপন্থী ছাত্রনেতা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছিলেন। বেগুসরাই নির্বাচনেও তিনি বামজোট সমর্থিত সিপিআই প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। সেই বামপন্থী পরিচিতিকে ছেড়ে কংগ্রেসে যোগদান করে কংগ্রেসের পুনরুত্থানে বা বিজেপি বিরোধী গণ আন্দোলনে বা রাজনৈতিক আবহ রচনায় তিনি অতিরিক্ত কোন ভূমিকা পালন করতে পারবেন কিনা সেটা সময় বলবে।

প্র:এই দলবদল কি বামপন্থীদের নীতিগত অবস্থানকে কাঠগোড়ায় দাঁড় করিয়ে দেয়?

উ: না! যাবতীয় দমনের মুখে দাঁড়িয়ে বামপন্থী আন্দোলন ছাত্র-যুব থেকে শুরু করে শ্রমিক, কৃষক, মহিলা, সংস্কৃতি সমস্ত ফ্রন্টেই এগিয়ে চলেছে। ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে বামপন্থার আদর্শ ও আন্দোলনগত ভূমিকার প্রয়োজন ক্রমেই বাড়ছে এবং বামপন্থীরা সেই পথে এগিয়ে যাবেন।

প্র: বিজেপি বিরোধী হিসেবে কংগ্রেসের কানহাইয়ার সাফল্য কামনা করবেন?

উ:আমার যতটুকু বলার ছিল বলে দিয়েছি। বাকি সময়ের উপর ছাড়া রইল।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close