দেশ

বাবা ড্রাইভার, দুঃস্থ শিশুদের নিয়ে সিনেমা বানিয়ে বিশ্বের দরবারে দেশের নাম উজ্জ্বল করল ছেলে!

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বছর খানেক আগে চিনের উহান প্রদেশে প্রথম দেখা মিলেছিল যে করোনা ভাইরাসের, আজ তা গোটা বিশ্বের জীবনযাত্রার স্বাভাবিক ছন্দকেই বদলে দিয়েছে আমূল। অতিমারী কালে সমস্ত ক্ষেত্রে বেড়েছে অনলাইন মাধ্যমের বাড়বাড়ন্ত। আর সেই প্রেক্ষিতেই আয়োজিত হয়েছে ‘করোনা শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’।

আন্তর্জাতিক এই ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে করোনাকালীন জনজীবনকে ভিত্তি করে দেখানো হবে একাধিক স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র। এই প্ল্যাটফর্মে বড় বড় পরিচালকদের নামের পাশে জায়গা করে নিয়েছে বিহারের এক ১৫ বছরের কিশোরের তৈরি ছবিও। কিশোরের এই সাফল্যকে কুর্নিশ জানিয়েছে নেট দুনিয়া।

জানা গেছে, ওই কিশোরের তৈরি শর্ট ফিল্মের নাম ‘দ্য মাস্ক’। মাত্র ৩ মিনিটের এই ছবি নজর কেড়েছে আয়োজকদের। কিশোরের নাম সন্তু কুমার। সে বিহারের পাটনার বাসিন্দা। তার বাবা পেশায় গাড়ির চালক। বস্তুত, ২০০৮ সালে বিহারের দুঃস্থ শিশুদের মধ্যেকার সৃজনশীল মনকে প্রকাশ করার জন্য শিক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে একটি প্রতিষ্ঠান চালু করা হয়েছিল। এই প্রতিষ্ঠানটির নাম ‘কিলকারি’। এই প্রতিষ্ঠানের শিশুদের নিয়েই সন্তু কুমার তার শর্ট ফিল্মটি বানিয়েছে বলে জানা গেছে সূত্রের খবরে।

‘কিলকারি’র প্রধান ড: জ্যোতি পরিহার জানিয়েছেন, “২০০৮ সালে তৈরি কিলকারি মূলত দুঃস্থ শিশুদের সৃজনশীলতাকে উৎসাহ দেওয়ার কাজ করে। এই ছবিতে (দ্য মাস্ক) দেখানো হয়েছে যদি আমরা আমাদের কাজ হারাই, তাও আমরা আত্মনির্ভরশীল হতে পারি।”

সন্তু কুমারের সঙ্গে এই ছবিতে আরো যারা কাছ করেছে তারা হল শান্তি কুমার, রাহুল কুমার, জিতু কুমার এবং রাহুল রাজ গুপ্তা। মোট ৫ দিন লেগেছে তাদের এই ছবির কাজ সম্পূর্ণ করতে। তাদের এই পরিশ্রম সার্থক করতে পেরে এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিহারের নাম উজ্জ্বল করতে পেরে তারা সকলেই উচ্ছ্বসিত।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ডিসেম্বরেই দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আন্তর্জাতিক করোনা ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। এটি বিশ্বের প্রথম মহামারী বিষয়ক চলচ্চিত্র উৎসব।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close