খবররাজ্য

পুজোতে ক্লাবগুলোকে অনুদান দিতে পারবে রাজ্য সরকার, জানিয়ে দিল কলকাতা হাইকোর্ট

মহানগর বার্তা ডেস্ক: রাজ্যের সিদ্ধান্তে শিলমোহর কলকাতা হাইকোর্টের। যার জেরে দুর্গাপুজো(Durga Puja) অনুদান মামলায় কিছুটা হলেও স্বস্তি পেল রাজ্য সরকার। কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, রাজ্য সরকার ৬ টি শর্তে পুজো ক্লাবগুলোকে অনুদান দিতে পারবে। প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের বেঞ্চ এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে। তাঁদের মতে শর্তসাপেক্ষে ৪৩,০০০ পুজো কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা অনুদান দিতে পারবে রাজ্য।

উল্লেখ্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee) আগের দু’বছর পুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়েছিলেন। তবে করোনা আবহ কাটিয়ে এবছরের পুজোয় তিনি ঘোষণা করেছিল যে, রাজ্যের ৪৩ হাজার দুর্গাপুজো(Durga Puja) কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা করে সরকারি অনুদান দেওয়ার হবে। অনুদানের পাশাপাশি পুজো কমিটিগুলি বিদ্যুৎ বিলেও ছাড় পাবে।

মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরেই দুটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয় কলকাতা হাইকোর্টে। সরাসরি রাজ্য সরকারের এরূপ সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করা হয়। মামলাকারীদের দাবি ছিল, সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা বা ডিএ বকেয়া রয়েছে। সেখানে পুজো কমিটিগুলোকে এই বিশাল অঙ্কের টাকা অনুদান দেওয়া একেবারেই ঠিক নয়। এটা রাজ্য সরকারের সম্পূর্ণ ভুল সিদ্ধান্ত।

আরও পড়ুন: আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম মিডিয়া দেখাতো ট্রেনে শুধু ইঁদুর ঘুরে বেড়াচ্ছে: মমতা

তারপর এই মামলায় রাজ্য সরকার হাইকোর্টে হলফনামা পেশ করে। তাতে বলা হয়, রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের কোনও মহার্ঘ ভাতা বকেয়া নেই। তাই এই মামলার কোনো গ্রহণযোগ্যতাই নেই। এছাড়াও রাজ্য সরকারের তরফে দাবি করা হয়, ডিএ এবং পুজোর অনুদান সম্পূর্ণ আলাদা দু’টি বিষয়। অন্যদিকে রাজ্য সরকার পুজো কমিটিগুলোকে বিদ্যুৎ বিলে কোনও ছাড় দিচ্ছে না বলেই জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : বাঙালির বিশ্বজয়! সমুদ্র বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করে স্বীকৃতি পেল কোয়েনা মুখোপাধ্যায়

প্রসঙ্গত, প্রায় ৪৩ হাজার ক্লাবকে দেওয়া হবে এই সরকারি অনুদান। আদালতের এই রায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন উদ্যোক্তারা। এ বছর ক্লাবগুলিকে পুজোর আয়োজনের জন্য ৬০ হাজার টাকা করে অনুদান ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আগের বছরগুলিতে তা ছিল ৫০ হাজার টাকা। এ বছর ১০ হাজার টাকা বাড়তি অনুদান পেয়ে স্বভাবতই আরও খুশি ক্লাবকর্তারা। তবে তা নিয়ে আইনি জটিলতা তৈরি হওয়ায় চিন্তিত ছিলেন তাঁরা।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close