দেশরাজ্য

একেই বলে মানবিকতা! আন্দোলনের মাঝে এম্বুলেন্সকে রাস্তা ছেড়ে দিল কৃষকরা, দেখুন ভিডিও

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ কৃষি বিল সংসদে পাশ হওয়ার পরেই দেশের একাধিক কৃষক সংগঠন সমন্বয় কমিটি আন্দোলনের ডাক দিয়েছিল। ঘোষণা করা হয়েছিল, ২৫ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারকে বোঝানো হবে কৃষক, ক্ষেতমজুরের ক্ষমতা। সেই কথামতো শুক্রবার সকাল থেকেই গোটা দেশজুড়ে রাস্তায় নেমে পড়লেন লক্ষ লক্ষ কৃষক। পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থানের মতো কৃষি প্রধান রাজ্যে বিক্ষোভ চলছিলই। এদিন তা আরও তীব্র আকার নিয়েছে। পশ্চিম ও উত্তর ভারতের একাধিক রাজ্যে রেল লাইনে বসে পড়েছেন কৃষকরা। তবে এই আন্দোলনের মাঝে মানবিক হতে ভুললেন না কৃষকরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ৩৩ মিনিটের একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে যে অমৃতসর–পাঠানকোট হাইওয়েতে কিছু অবরোধকারী অ্যাম্বুল্যান্সের জন্য রাস্তা করে দিলেন। একদল প্রতিবাদকারী হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন, তাঁরা সরে যেতেই অ্যাম্বুল্যান্স পরিস্কার রাস্তা পেয়ে যায়। এর পেছনে আর একটি গাড়িও বেড়িয়ে যায়। কিছু কিছু কৃষক ট্র‌্যাক্টরের ওপর বসেছিলেন আবার কেউ কেউ ট্রাক নিয়ে রাস্তা আটকে দিয়েছিলেন।

https://twitter.com/alok_pandey/status/1309385891492687872?s=19

আর একটি ভিডিও ক্লিপিংয়ে দেখা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের হাপুরে বহু কৃষক একটি অ্যাম্বুল্যান্সকে রাস্তা করে দিতে সহায়তা করছে। সেখানে বহু কৃষকের সমাগম হয়েছিল। ওই ভিডিওতে কিছু ট্রাফিক পুলিশকেও দেখা গিয়েছে। তবে পুলিশি হস্তক্ষেপ ছাড়াই আন্দোলনকারী কৃষকরা নিজেদের মতো করে অ্যাম্বুল্যান্সকে সাহায্য করছিলেন।

একাধিক বিজেপি শাসিত রাজ্যেও বিশাল বিশাল মিছিল বেরিয়েছে কৃষি বিল প্রত্যাহারের দাবিতে। বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশেও কৃষক বিক্ষোভ চলছে পাল্লা দিয়ে। ত্রিপুরার রাজধানী শহর আগরতলায় একাধিক জায়গায় বাম গণসংগঠনগুলির রাস্তা অবরোধে যান চলাচল স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে।

বাংলাতেও জেলায় জেলায় পথে নেমে পড়েছে বাম-কংগ্রেস। বাঁকুড়া, হুগলি, দুই বর্ধমান, দুই মেদিনীপুর, দুই চব্বিশ পরগনার গ্রামীণ অঞ্চল-সহ রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণ পর্যন্ত সর্বত্র বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। জাতীয় সড়ক অবরোধ চলছে বহু জেলায়। যদিও তৃণমূলের কৃষক সংগঠনকে রাজ্যের কোথাও সে ভাবে রাস্তায় নামতেই দেখা যায়নি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close