দেশ

বন্যায় বিধ্বস্ত আসাম, রাস্তাতেই ক্যানসার রোগীদের কেমো দিচ্ছেন ডাক্তার

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: বৃষ্টির উত্তরে প্রভাব বেশি, দক্ষিণে ঘাটতি। এই পরিস্থিতির মাঝেই বর্ষার চরিত্র অসমে উত্তাল৷ বানভাসি প্রায় ৩২ জেলার ৫৫ লক্ষ মানুষ। ব্রহ্মপুত্র ও বরাক নদীর জলস্তর আরও বেড়েছে। যার ফলে নতুন করে অববাহিকার বেশ কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়েছে। ফলে, ভেসে যাচ্ছে একের পর এক গ্রাম।রাস্তাঘাট ডুবে গেছে। , ভেসে গেছে দোকানপাট  চাষের জমি। এমনকি জলমগ্ন হাসপাতাল। এই পরিস্থিতিতে রোগীদের চিকিৎসা করা হচ্ছে রাস্তাতেই।

জলমগ্ন হাসপাতাল এর প্রতিটি ওয়ার্ড। এই অবস্থায় ক্যানসার রোগীদের ট্রিটমেন্ট হচ্ছে রাস্তাতেই। খোলা আকাশের নীচে ক্যান্সার রোগীদের কেমো দেওয়ার ব্য়বস্থা করেছেন চিকিৎসকরা। বন্যার মধ্যেও চালু রয়েছে হাসপাতালের পরিষেবা। রোগীদের লাইফ গিয়ার পরানো হয়েছে। রোগীদের পরীক্ষা নিরীক্ষাও হচ্ছে রাস্তাতেই।

প্রসঙ্গত, এই বরাক নদীর তীরেই শিলচর শহর। ফলে বানভাসি শিলচরের একাধিক এলাকা।  জলবন্দি বহু মানুষ। স্থানীয়দের দাবি, প্রবল বৃষ্টিতে বরাক নদীর বাঁধ ভেঙেই বিপত্তি হয়েছে। ভেসে যাচ্ছে ঘরবাড়ি। আশ্রয়হীন বহু মানুষ। শহরে উদ্ধারকাজে নেমেছে রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা দল।

তবে এখনও সব জায়গায় এখনও সাহায্য পৌঁছয়নি।  অনেক দেরি হচ্ছে, প্রত্যন্ত এলাকার উদ্ধারকাজে। হেলিকপ্টার থেকে খাবার, জলের পাউচ ফেলা হলেও তা কোনও একটি উঁচু বাড়ির ছাদে ফেলা হচ্ছে। গলাসমান জল ভেঙে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেই জায়গায় পৌঁছতে অনেকেই সাহস পাচ্ছেন না। খাবার, জলের অভাব অসমের একাধিক এলাকায়। বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন বহু এলাকা।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close