রাজ্যরাজনীতি
Trending

নন্দীগ্রাম মামলায় ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা মমতার, ধাক্কা খেল বিজেপিও

নন্দীগ্রাম মামলায় ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা মমতার, ধাক্কা খেল বিজেপিও

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক :- একুশের বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নন্দীগ্রামে যে রাজনৈতিক তরজার সূত্রপাত হয়েছিলো তাতে ছিলো দুই যুযুধান ব্যক্তিত্বের মুখোমুখি লড়াই, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বনাম পূর্ব মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রাম কেন্দ্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরাজিত হলেও কার্যত ভোট গণনার কারছুপির জেরেই পরাজিত হয়েছেন, এমনটাই অভিযোগ এনে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, শুনানির মাঝেই এই মামলার বিচারপতি কৌশিক চন্দ মামলা থেকে সরে গেলেন এবং তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে করা হলো ৫ লক্ষ টাকার জরিমানা। সংবাদ সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই মামলার বিচারপতির সঙ্গে বিজেপি মহলের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে এমনটাই অভিযোগ এনে প্রথম সরব হয়েছিলেন ডেরেক ও ব্রায়েন। শুধু তাই নয়, বিচারপতি কৌশিক চন্দের সাথে দিলীপ ঘোষের একটি ছবিও তিনি টুইট্যারে পোস্ট করে বিরোধিতা করেন এবং মামলা থেকে তাকে সরে যেতে বলেন।

জানা গিয়েছে, ভোট গণনার কারছুপি মামলার ভার্চুয়াল শুনানিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পর্যন্ত কৌশিক চন্দকে ‘বিজেপি ঘনিষ্ঠ’ বলে অভিহিত করেন। পাশাপাশি, তৃণমূল কংগ্রেসের মহুয়া মিত্র সহ বিভিন্ন আইনজীবীরা এই ঘনিষ্ঠতা পক্ষপাতিত্বের রূপরেখায় এনে ঘোর বিরোধিতা করেন এবং নিরপেক্ষ মামলার দাবি করেন।

উল্লেখ্য, ঘটনার তীব্র জলঘোলা হতেই এই মামলা থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন বিচারপতি ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ৫ লক্ষ টাকার জরিমানা করেন। এই বিষয়ে এদিন তিনি জানান, “নিরপেক্ষ ভাবে বিচার করা একজন বিচারপতির সাংবিধানিক কর্তব্য। পেশার জেরেই আমায় বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয় কিন্তুু কিছু সুবিধাবাদী মানুষজন এই ঘটনাকে পক্ষপাতিত্ব বলে জাগিয়ে দিতে চাই। আমি মনে করছি এই মামলা থেকে আমার সরে যাওয়াই শ্রেয়। তা নাহলে ওরা এই বিতর্ক আরো টেনে নিয়ে যাবে।”

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close