দেশভাইরাল

অর্থের অভাবে জুটলো না শ্মশান, আদিবাসী শ্রমিকের মৃতদেহ দাহ করা হলো খোলা রাস্তায়

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক : বর্তমানে করোনা এবং লকডাউনের প্রভাবে জেরবার ভারতবর্ষ। আর এর মধ্যেই ফের এক মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকলো সমগ্র গুজরাট। লকডাউনের দরুণ আর্থিক মন্দাবস্থার বশবর্তী হয়ে গুজরাটের এক আদিবাসী সম্প্রদায়ের পরিবারকে রাস্তার ধারেই সম্পন্ন করতে হলো শেষকৃত্য।

প্রসঙ্গত, গুজরাটের সুরাটের জেলার এনা গ্রামের বাসিন্দা হলেন এই পরিবার। দীর্ঘ প্রায় ৪৫ বছর ধরে তাঁরা এই গ্রামে বসবাস করছেন। এই পরিবারেরই একজন হলেন মোহন রাথোড়, যিনি পেশায় একজন শ্রমিক এদিন রাত প্রায় ২টো নাগাদ শারীরিক এক ভয়াবহ অসুস্থতার দরুণ মারা যান তিনি। এর প্রায় ৫ ঘন্টা করা দাহ করার উদ্দেশ্যে তার দেহ নিয়ে শ্মশানঘাটে পৌছায় তার পরিবার। সেখানেই তাদের জানানো হয়, ২৫০০ টাকা দিলে তবেই তারা শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে পারবে।

এরপরেই মহাফাপড়ে পড়েন এই পরিবার। শেষপর্যন্ত সাহায্যের হাত বাড়িয়ে এগিয়ে আসে তাদের সম্প্রদায়ের মানুষজন এবং একপ্রকার রাস্তার পাশেই কাঠ জোগাড় করে দাহ করা হয় এই ব্যক্তিকে। এই বিষয়ে এই পরিবারের এক পড়শি অর্জুন রাথোড় জানিয়েছেন, “ওরা খুবই গরীব। প্রায় একবেলা খেয়েই কাটাতে হয় ওদের। তাই লকডাউন পরবর্তী সময়ে এই টাকাটা ওদের কাছে অনেক।”

ভারত রাথোড় নামক এক শ্মশান ব্যবসায়ী এই বিষয়ে বলেছেন, “শ্মশান কার্যের জন্য এতদিন পর্যন্ত মাত্র ১২০০ টাকা ধার্য করা হতো। কিন্ত এখন এই অর্থের পরিমাণ বাড়িয়ে ২৫০০ করে দেওয়া হয়েছে। যা নিম্নশ্রেনীভুক্ত মানুষদের কাছে যথেষ্ট বেদনাদায়ক।”

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close