গ্রিন রুম

কোটিপতি বাবার ছেলে হয়েও মাদুরে শুয়েছে হৃতিক, গাড়ি নয় চড়েছেন অটোতে

মহানগর বার্তা ডেস্ক: বলিউডের সুপারস্টার তিনি। এশিয়ার সুদর্শন পুরুষদের তালিকায় প্রথম সারিতে যাঁর নাম। যাঁকে কিনা বলিউডের ‘গ্রীক গড’ বলেও ডাকা হয়। আর সেই হৃতিক রোশনকেই (Hrithik Roshan) কিনা চরম দারিদ্রের শিকার হতে হয়েছিল একসময়ে। এমনকি অর্থাভাবের জেরে মাদুরে শুয়েও রাত কাটাতে হয়েছে হৃতিককে (Hrithik Roshan) আম আদমির মতোই যাতায়াত করতে হয়েছে অটো বাসে। এক সাক্ষাৎকারে ছেলের সম্পর্কে এমন কথাই জানিয়েছেন পরিচালক তথা অভিনেতা রাকেশ রোশন। অভিনেতা হওয়ার আগে বাবার সঙ্গে সহকারি পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন হৃতিক(Hrithik Roshan) । যদিও সে সময় বাবার পড়া অনুশাসনেই থাকতে হতো বর্তমানের সুপারস্টারকে। দামি গাড়িতে না চড়ে চড়তে হতো অটো বাসে।

আরও পড়ুন:এত দিনে চাকরি হয়নি কেন? শিক্ষক দিবসে ২৩ জনকে চাকরির নির্দেশ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের

রাকেশ রোশনের কথায়,”কলেজ পাশ করার পর ‘স্পেশাল এফেক্টস’ শেখার জন্য বিদেশে সুযোগ পেয়েছিল ও। কিন্তু ও এখানেই আমার সঙ্গে ‘করণ অর্জুন’ ছবিতে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেয়। সহকারী পরিচালক হিসাবে কাজ শুরু করে। আমি খুব কঠোর ছিলাম ওর প্রতি। আমার গাড়িতে ওকে চড়তে দিতাম না। অন্য সহকারী পরিচালক যে ভাবে সেটে থাকতেন, তেমন ভাবেই ওকে থাকতে দিতাম। পরিবারের গাড়িতেও চড়ার অনুমতি ছিল না ওর। বাস, অটোয় করে যাতায়াত করত। সেটে ও আমার ছেলে নয়, সহকারী পরিচালক ছিল। তাই কোনও বাড়তি সুবিধা দিইনি ওকে।”

আরও পড়ুন:ভিডিও বানাতে গিয়েই বিপত্তি,ট্রেনের ধাক্কায় জখম যুবক

শাহরুখ-কাজল-সলমন খান অভিনীত ‘করণ অর্জুন’ ছাড়াও পরিচালক রাকেশের ‘খেল’, ‘কোয়লা’র মতো ছবিতে সহকারী পরিচালকের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল হৃতিককে (Hrithik Roshan)। পরে রাকেশরই পরিচালনায় ‘কহো না প্যায়ার হ্যায়’ ছবির হাত ধরে নায়ক হিসাবে বলিপাড়ায় আত্মপ্রকাশ ঘটে হৃতিকের। প্রথম ছবিতেই বক্স অফিসে ঝড় তুলে রাতারাতি সুপারস্টার হয়ে ওঠেন হৃতিক রোশন।

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close