দুনিয়া

‘নোংরা হিন্দু’, ‘জঘন্য কুকুর’ বলে গালিগালাজ, আমেরিকায় ফের হুমকির মুখে ভারতীয় যুবক

মহানগর বার্তা ডেস্ক: সব প্রতিশ্রুতি সার, পৃথিবীর সর্বশক্তিমান রাষ্ট্রে ভারতীয়দের উদ্দেশ্যে বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণ অব্যাহত। চার ভারতীয় মহিলাকে(Indian Woman) একযোগে জাত তুলে নোংরা গালি দেওয়ার দিনকয়েক পর‌ই মারাত্মক বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের শিকার হলেন এক ভারতীয় যুবক। এমনকি কৃষ্ণান জয়ারামন নামে ওই ভারতীয় যুবকের মুখে থুতুও ছেটানো হয়!

চার ভারতীয় মহিলার(Indian Woman) দলটি বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণের শিকার হয়েছিলেন টেক্সাস প্রদেশের ডালাসে। এদিকে গত ২১ আগস্ট ক্যালিফোর্নিয়ার ফ্রিমন্টের গ্রিমার বুলেভার্ডে এই বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের শিকার হন দক্ষিণ ভারতীয় কৃষ্ণান জয়ারামন। আশ্চর্যজনকভাবে যে আমেরিকান যুবক তাঁর উদ্দেশ্যে ‘নোংরা হিন্দু’, ‘জঘন্য কুকুর”-এর মতো কদর্য থেকে কদর্যতর শব্দ প্রয়োগ করেছেন তাঁর‌ও ইন্ডিয়ান কানেকশন আছে। শিখ সম্প্রদায়ের ওই বর্ণবিদ্বেষী যুবকের নাম তেজিন্দার সিং। আমেরিকার এনবিসি নিউজ বুধবার ওই ভারতীয় যুবকের বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণের শিকার হওয়ার ঘটনাটি প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছে।

বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণের সময় কৃষ্ণান জয়ারামন নিজেই সেই ঘটনার ভিডিও করেন। তাতে তেজিন্দার সিং নামে আক্রমণকারীকে তাঁর উদ্দেশ্যে বলতে শোনা যায়, “তুমি একটা জঘন্য কুকুর। কী কদর্য দেখতে তোমাকে। এইরকম চেহারা নিয়ে আর কখনও প্রকাশ্যে আসবে না!”

আরও পড়ুন:’খাবারের কোনো জাত হয়না’ মুসলিম ডেলিভারি বয়কে না করায় প্রশ্নের মুখে সুইগি গ্ৰাহক

শুধু তাই নয়, ওই ভিডিওয় দেখা গিয়েছে এমন বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যের পাশাপাশি আক্রমণকারী যুবক ওই ভারতীয়র মুখে অন্তত দু’বার থুথু ছিটিয়েছে! এছাড়াও তাকে বলতে শোনা যায়, “তোমরা ভারতীয়রা, নোংরা হিন্দু….” এরপর ভারত এবং ওই যুবক সম্বন্ধে বেশ কিছু গালি প্রয়োগ করে তেজিন্দার সিং নামে ঐ আক্রমণকারী।

আরও পড়ুন:সত্যজিৎ রায়ের হাত ধরে আসেন সিনে জগতে,  আজ মৃত্যুলোকের পথে ‘জন অরণ্য’-এর সোমনাথ

এর আগে চার ভারতীয় মহিলার(Indian Woman) দলের উদ্দেশ্যে মেক্সিকান জাত আমেরিকান মহিলা বলেছিলেন, “তোমরা ভারতীয়রা ভালোভাবে বাঁচার জন্য এই দেশে এসেছ। কারণ তোমরা জান ভারতে ভালোভাবে বাঁচা সম্ভব নয়। এই দেশ ছেড়ে এক্ষুনি ভারতে ফিরে যাও!”

সবার খবর সঠিক খবর পড়তে চোখ রাখুন মহানগর বার্তায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close