দেশ

রেকর্ড গড়লো দেশ! ভারতের ইতিহাসে প্রথমবার যুদ্ধজাহাজে নিয়োগ করা হল দুই মহিলাকে

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: ভারতীয় নৌসেনার ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে খোদিত হল এই প্রথম দুই মহিলার নাম। নৌবাহিনীতে সাব লেফটেন্যান্ট পদে নাম লেখাল কুমুদিনী ত্যাগী ও সাব লেফটেন্যান্ট পদে নাম লেখালো রিতী সিং। এই দুই তনয়া যুদ্ধ জাহাজের কর্মী হিসেবে নিয়োজিত হয়।

প্রায়ই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উঠে আসছে কণ্যাভ্রুন হত্যার খবর। সেই সকল নিম্ন মানসিকতাসম্পন্ন মানুষের গালে সপাটে চড় মেরে আবারও নিজেদের প্রমাণ করলেন মেয়েরা। মেয়েরা যে কোন অংশে পিছিয়ে নেই তা আগেই প্রমাণিত হয়েছে বহুবার। কেউ পাইলট তো কেউ পুলিশের বড় পদে নিযুক্ত, কেউ এবার যুদ্ধ বিমান চালাতে পারদর্শী তো কেউ পর্বতের শৃঙ্গ জয়ে সফল। সেরকমই এবার নৌসেনাবাহিনীতে যুদ্ধ জাহাজের কর্মী হিসেবে যুক্ত হলেন সাব লেফটেন্যান্ট পদে কুমুদিনী ত্যাগী ও সাব লেফটেন্যান্ট পদে রিতী সিং।

প্রসঙ্গত, নৌবাহিনীর জাহাজে মহিলাদের ব্যাক্তিগত গোপনীয়তা থাকবে না তাই তাঁদের জাহাজে নিয়োগের ক্ষেত্রে অনেকেই মত দিতেন না। ফলে তাঁদের নিয়োগ করা হত না। কিন্তু এই ভ্রান্ত ধারনার বেড়াজাল ভেঙ্গে, সোমবার প্রথম মহিলা হিসেবে সাব লেফটেন্যান্ট কুমুদিনী ত্যাগী ও সাব লেফটেন্যান্ট রিতী সিংকে নিয়োগ করা হয় যুদ্ধজাহাজে।

সূত্র মারফত জানা যায়, তারা নৌবাহিনীর হেলিকপ্টার সম্পর্কে নানা প্রশিক্ষন নিয়েছেন। শীঘ্রই তাঁদের হেলিকপ্টার চালাতেও দেখা যাবে। ভারতীয় নৌবাহিনী খুব শীঘ্রই এম এইচ সিক্সটি আর নামে একটি হেলিকপ্টার পেতে চলেছে । সম্ভবত যুদ্ধজাহজের দুই মহিলা কর্মী ওই হেলিকপ্টার চড়েই উড়বেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।অ

কিছুদিন আগেই রাফায়েল যুদ্ধবিমান চালানোর জন্য এক মহিলাকে নিযুক্ত করা হয়, তিনি আম্বালায় বায়ুসেনার গোল্ডেন অ্যারোজ স্কোয়াড্রনে কাজ করেন। এছাড়া ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট অবনী চতুর্বেদী, ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মোহনা সিং, ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট ভাওন্না কান্থ নামক তিন মহিলাকে ইতিমধ্যেই নিয়োগ করা হয়েছিল ২০১৬ সালে। বর্তমানে বায়ুসেনায় ১৮৭৫ জন মহিলা কর্মরত, যুদ্ধবিমান চালানো থেকে নেভিগেটর সব কাজে পারদর্শী তারা। এক কথায় বলতে গেলে মহিলারা আকাশ- মাটি-জল এই তিন যায়গায় নিজের শক্ত ঘাঁটি তৈরীতে তারা সক্ষম।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close