রাজ্য

“দু’পয়সার সাংবাদিক, তাই পারি”, মুমূর্ষু রোগীকে রক্ত দিয়ে মহুয়াকে জবাব সাংবাদিকের

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: সংবাদমাধ্যমের প্রতি মহুয়া মৈত্রের অপমানজনক মন্তব্য নিয়ে এখনও জারি তরজা। তৃণমূল সাংসদের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়েছে রাজ্য জুড়ে। ইতিমধ্যে রাজ্যের অন্যতম বৃহত্তম সংবাদ সংস্থা জি ২৪ ঘন্টার তরফে মহুয়া মৈত্রকে বয়কটের ডাকও দেওয়া হয়েছে। সমালোচনায় মেতেছে টলিউডও। সেই আবহেই এবার মহান দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন এক সাংবাদিক।

এদিন হাওড়ার এক সাংবাদিক এগিয়ে এলেন এক মুমূর্ষু রোগীকে রক্ত দিতে, রাজ্যের সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে যা তুলে ধরেছে আলাদা তাৎপর্য।

কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে ডাকা কৃষকদের ধর্মঘটে আর পাঁচ দিনের মতোই সকাল সকাল বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়েছিলেন হাওড়ার সাংবাদিক দেবাশিস চক্রবর্তী। কাজের মাঝে হঠাৎই তাঁর কাছে খবর আসে এক মহিলার B+ রক্তের প্রয়োজন। ধর্মঘটের আবহে রক্ত জোগাড় করা কঠিন। তাই সাত পাঁচ না ভেবে নিজেই রক্ত দিতে রাজি হয়ে যান দেবাশিস চক্রবর্তী।

হাওড়ার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ক্যান্সার আক্রান্ত এক মধ্যবয়স্কা মহিলা। যথাসময়ে সেখানে পৌঁছে পর্যাপ্ত রক্ত দেন ওই সাংবাদিক। জানা গেছে, ওই ক্যান্সার আক্রান্ত মহিলা এশিয়াডে সাতবার সোনা জয়ী এবং কলকাতা পুলিশের টিম লিডার। রক্ত পেয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন তাঁর পরিবারের লোকজন।

এ ব্যাপারে দেবাশিস চক্রবর্তী জানান, “সাংবাদিকতার পাশাপাশি মানুষের পাশে বিপদে আপদে থাকার সাধ্যমতো চেষ্টা করি। তাই বনধের দিন যখন বোন ফোনে বলল রক্তের প্রয়োজন, তখন আর কাকে পাব। ঠিক করলাম আমিই গিয়ে রক্ত দেব।” এখানেই শেষ নয়, কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্রের প্রতি দেবাশিস বাবুর বার্তা, “আমরা দু পয়সার সাংবাদিক, তাই আমরা পারি। আপনি পারবেন না এমপি ম্যাডাম।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রবিবার তৃণমূল কংগ্রেসের একটি কর্মী সম্মেলনে যোগ দিয়ে মেজাজ হারিয়েছিলেন মহুয়া মৈত্র। তিনি সংবাদমাধ্যমকে ” দু পয়সার প্রেস ” বলে কটাক্ষ করেছিলেন। তাঁর এই মন্তব্যের পর থেকেই কার্যত উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ সংবাদমাধ্যমকে প্রকাশ্যে একজন জন প্রতিনিধি হয়ে এভাবে আক্রমণ নিতান্তই অনভিপ্রেত। তাঁর মন্তব্যকে তুলোধুনো করেছে বিজেপি সহ অন্যান্য বিরোধী দল গুলি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close