বিনোদন

কঙ্গনার লড়াইকে কুর্নিশ জানাতে রানি লক্ষীবাই শাড়ি বানালেন বস্ত্র ব্যবসায়ী

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্কঃ সুশান্ত রহস্য মৃত্যু কাণ্ডকে নিয়ে প্রতিনিয়ত উঠে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। তার জন্য বেশীরভাগ মানুষ সুশান্ত প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে দায়ী করেছে। আর এই নিয়েই মায়ানগরী মুম্বাইতে এক প্রকার যুদ্ধ শুরু হয়েছে, বি-টাউনের কিছু তারকা দাড়িয়েছ রিয়ার পাশে আবার কিছু তারকা দাঁড়িয়েছে রিল লাইফের ধোনির পাশে, ঠিক তেমনই মনিকর্নিকা সিনেমায় অভিনীত লক্ষীবাই ওরফে কঙ্গনা রানাওয়াত সুশান্ত মৃত্যুর প্রথম দিন থেকেই তার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সুবিচারের আশায়। এরপরই তিনি কেঁচো খুড়ে কেউটে বার করেন, জনসমক্ষে প্রকাশ্যে আনেন গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের অন্ধকার দিকের কথা, তিনি জানিয়েছে গোটা বলিউড মাদকের নেশায় নিমজ্জিত, এমনকি তিনি তাবড় তবর অভিনেতা, পরিচালকদের নাম নিয়ে তাঁদের সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়েছেন। আর এর ফলেই ঘটে বিপত্তি।

এন সি বি ( Narcotics Control Bureau) এই ড্রাগস মামলার তদন্ত করতে গিয়ে রিয়া সহ আরও কয়েকজন কে গ্রেফতার করেন। কিন্তু এখনেই থেমে যায় নি বরং কাহানীর সূত্রপাত, রিয়াকে জোরকদমে বাঁচানোর জন্য শিবশেনা জোর কদমে উঠে পরে লেগেছিল, আর এর ফলেই ঘটে সংঘাত , কঙ্গনা বনাম শিবশেনা। ড্রাগ মামলায় মুখ খোলার জন্য তাকে অনেক শাস্তি পোহাতে হয়, বিএমসি (Brihanmumbai Municipal Corporation) কঙ্গনার পালি হিলের অফিসের নির্মান বেয়াইনি বলে সেটি বুলড্রজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়। কিন্তু তাতে শেষ মেশ লাভ হয় নি, তিনি হার মানে নি বরং আরও বেশী মজবুত হয়েছে , কারপ্ন লোহাকে পিটালে সেটি আরও বেশী শক্ত হয়।

তার এই মনের জোর কে ভরসা দিতে, সত্যের পথে লড়াইয়ে তার পাশে থাকতে গুররাতের সুরাটের আল্লিয়া নামক এক কাপড়ের কোম্পানি মনিকর্নিকায় রানী লক্ষ্মীবাই যে শাড়ী পরেছিল সেই ধরনের শাড়ী তৈরি করছে। কাপড়ের দোকানের যিনি মালিক তিনি বলেন, “ তিনি এক মহৎ উদ্দেশ্যে আওয়াজ তুলেছেন কিন্তু তার কণ্ঠস্বরকে চাপা দেওয়ার জন্য তার অফিস ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই আমরা চাই তার পাশে থেকে তার সমর্থন করতে।’’ তাঁদের তৈরি শাড়িতে লক্ষিবাইয়ের বেশে কঙ্গনার ছবির পাশাপাশি লেখা আছে ‘Allia Supports The Power Of Women Manikarnika We Salute To Kangana.’ এই ভাবে সকলেই সত্যের পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close