দেশ

বিজেপির “জয় শ্রীরাম” ব্যানার সরিয়ে জাতীয় পতাকা লাগলেন কেরালার বাম কর্মীরা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: দেশ জুড়ে গেরুয়া ঝড়ের মাঝে একমাত্র কেরালাতেই রয়েছে বামপন্থী সরকার। তবে দক্ষিণের সেই রাজ্যেও শক্তি বাড়াতে মরিয়া ভারতীয় জনতা পার্টি। সেই সূত্রে কেরালায় বিরোধী বিজেপির সঙ্গে শাসকদলের দ্বন্দ্ব লেগেই থাকে। এবার বাম বিজেপির সেই দ্বন্দ্বের আরো এক নমুনার সাক্ষী থাকল কেরালা।

দুদিন আগেই কেরালার পালাক্কাদ মিউনিসিপ্যাল অফিসের বিল্ডিংয়ে নিজেদের ব্যানার লাগিয়েছিল স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা। ব্যানারে লেখা ছিল “জয় শ্রী রাম”। তারপর ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই সে ব্যানার ঢেকে দিল ডিওয়াইএফআই কর্মীরা। তবে এক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য, নিজেদের দলের লাল পতাকা ব্যবহার করে নি তাঁরা। দেশের জাতীয় তেরঙা পতাকা দিয়ে “জয় শ্রী রাম” ব্যানার ঢেকে দিয়েছেন কেরালার বাম কর্মীরা।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী জানা গেছে, গতকাল সিপিআইএম-এর যুব সংগঠনের অন্তত ১০ জন কর্মী লাইন করে পালাক্কাদ মিউনিসিপ্যাল অফিসে ঢোকেন। তাঁরা অফিস থেকে “পুঁজিবাদ নিপাত যাক” স্লোগান দিতে দিতে বিজেপির ব্যানার নামিয়ে দেন।

তবে এ ব্যাপারে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপির জেলা সভাপতি ই কৃষ্ণাদাস। তিনি বলেন জাতীয় পতাকাটি উল্টোভাবে ঝোলানো হয়েছিল। এর ফলে জাতীয় পতাকার অসম্মান করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। এছাড়া এলাকায় বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে এদিন স্থানীয় বিজেপির বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেছে সিপিএমও।

গতকাল পালক্কাদের ডিওয়াইএফআই-এর ফেসবুক পেজ থেকে পতাকা সরানোর সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। সেখানে তাঁরা লেখেন, “এটা একটা মিউনিসিপ্যাল অফিস। কোনো আরএসএস অফিস নয়। এটা গুজরাট নয়, এটা কেরালা।”

এ ব্যাপারে ডিওয়াইএফআই জেলা সভাপতি টিএম শশী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “উত্তরে বিজেপি বিভিন্ন জায়গায় গেরুয়া রং করে। ‘জয় শ্রী রাম’ ব্যানার লাগায়। যেখানেই তারা ক্ষমতায় আছে সেখানেই তারা নানা রকমের কমিউন্যাল পোস্টার লাগায়। কিন্তু এটা কেরালা। এখানকার ধর্মনিরপেক্ষ মানুষ এমন জিনিস সহ্য করবে না।” উল্লেখ্য কেরালার স্থানীয় নির্বাচনে মোটেই ভালো ফল করতে পারে নি বিজেপি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close