দেশ

২০টি আসনে লিড, বিহারে বহু দিন পর ভালো ফলের পথে বামেরা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা নিয়ে গোটা দেশের রাজনৈতিক মহলে এখন উত্তেজনা তুঙ্গে। মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারই কি ফের বসবেন বিহারের মসনদে? নাকি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বিহার বেছে নেবে নতুন মুখ? সকাল থেকে সেই দিকেই তাকিয়ে আছে গোটা দেশ। তবে নীতিশ-তেজস্বী দ্বন্দ্বের মাঝেই সামনে এসেছে আরো এক আপাত অপ্রত্যাশিত ফল। বিহারে বহুদিন পর ভালো ফল করতে চলেছে বামেরাও।

পাঁচ বছর আগের বিধানসভা নির্বাচনে একেবারেই ভালো হয় নি বিহারের বাম দলগুলির ফল। মঙ্গলবার সেখানেই প্রথম রাউন্ডের গণনার পর দেখা গেল ছবিটা বদলেছে বেশ খানিকটা। বামেরা যে ২৯টি আসনে এবার লড়াই করতে নেমেছে, তার মধ্যে ২০টিতেই এগিয়ে আছে লাল ঝান্ডা। বামেদের এই ফল নিঃসন্দেহে মনোবল বাড়িয়েছে লাল শিবিরে।

বস্তুত, এবছর মোট ২৯টি আসনের মধ্যে ২০টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে সিপিআই এমএল, ৬টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে সিপিআই এবং ৪টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আছে সিপিএম। মূলত মহাগঠবন্ধন জোটের শরিক হিসেবে বিহারে লড়াই করছে বামেরা। ভোট গণনা এখনও শেষ না হলেও প্রাথমিক ভাবে ২০টি আসনেই এগিয়ে আছে তারা।

মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে বিহারে শুরু হয়েছে ভোট গণনা। বলা বাহুল্য লড়াই চলছে সমানে সমানে। কোনো দলই এখনও পর্যন্ত একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করতে পারে নি। যদিও বুথ ফেরত সমীক্ষা বা এক্সিট পোল বলছিল বিহারে নীতিশ কুমারের পুণরায় ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা ক্ষীণ, লালু প্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদবের নেতৃত্বাধীন আরজেডি জোট ক্ষমতা দখল করতে চলেছে, তবে বেলা গড়াতেই ভোট গণনায় সামনে আসতে থাকে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ছবি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একসময় বিহারে বামেদের শক্তি ছিল উল্লেখযোগ্য। সর্বোপরি তরুণ নেতা কানহাইয়া কুমারের উত্থান বিহারে বামেদের স্বপ্ন দেখিয়েছিল। তবে ২০১৫ সালের বিধানসভা নির্বাচন কিংবা গত বছরের লোকসভা নির্বাচনে বামেদের কার্যত ভরাডুবি হয় বিহারে। এবছরের ভোট গণনায় তাই ফের নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে বিহারের লাল শিবির।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close