রাজ্য

“ঘুষখোর গোদি মিডিয়া”, ক্ষমা না চেয়ে ফের বিস্ফোরক মন্তব্য মহুয়া মৈত্রর

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: পার্লামেন্টে ক্ষুরধার যুক্তিতে বিপক্ষকে পর্যুদস্ত করতে পারদর্শী তিনি, রাজ্যের এবং দেশের নানাবিধ সমস্যাকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে একাধিকবার মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন মহুয়া মৈত্র। কিন্তু এবার তিনি জড়িয়েছেন বিতর্কে। সংবাদমাধ্যমকে নিয়ে অপমানজনক মন্তব্যের জেরে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের প্রবল সমালোচনায় সরব হয়েছে মিডিয়া।

সংবাদমাধ্যমের প্রতি মহুয়া মৈত্রের বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে গতকালই বিবৃতি দিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল কলকাতা প্রেস ক্লাব। কিন্তু তাতে কার্যত ভ্রূক্ষেপই করেননি কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ। নিজের মন্তব্যেই অনড় থেকেছেন তিনি। বরং গণমাধ্যমের অপমানের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছেন আরো খানিকটা।

এদিন গতকালের প্রেস ক্লাবের বিবৃতির জবাবে মহুয়া মৈত্র বলেছেন, “সাংবাদিকতার মানের অসম্ভব রকম পতনের দিকে নজর দেওয়া উচিত প্রেসের।” এখানেই শেষ নয়, তিনি সংবাদমাধ্যমকে ‘ঘুষখোর গোদি মিডিয়া’ বলেও উল্লেখ করেছেন। বস্তুত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুগত সাংবাদিকদের বিদ্রূপাত্মক উপাধি হিসেবে “গোদি মিডিয়া” বলে অভিহিত করে থাকেন বিজেপি বিরোধীরা। অর্থাৎ এদিন মহুয়া মৈত্র রাজ্যের সাংবাদিকদের মোদি ঘনিষ্ঠ বলে ব্যঙ্গ করেছেন।

সাংবাদিকতার এই চরম অপমান মেনে নেয় নি কলকাতা প্রেস ক্লাব। তৃণমূল সাংসদের এহেন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ফের বিবৃতি দিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে তারা। তারা জানিয়েছে, তৃনমূল নেত্রীর মন্তব্যে তারা “গভীরভাবে উদ্বিগ্ন”।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে রবিবার তৃণমূল কংগ্রেসের একটি কর্মী সম্মেলনে যোগ দিয়ে মেজাজ হারিয়েছিলেন মহুয়া মৈত্র। তিনি সংবাদমাধ্যমকে ” দু পয়সার প্রেস ” বলে কটাক্ষ করেছিলেন। তাঁর এই মন্তব্যের পর থেকেই কার্যত উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ সংবাদমাধ্যমকে প্রকাশ্যে একজন জন প্রতিনিধি হয়ে এভাবে আক্রমণ নিতান্তই অনভিপ্রেত। তাঁর মন্তব্যকে তুলোধুনো করেছে বিজেপি সহ অন্যান্য বিরোধী দল গুলি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close