খবররাজ্য

‘চা, ঝালমুড়ি, ঘুগনি নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন, পুজোয় বিক্রি করেও শেষ হবেনা’, পরামর্শ মমতার

মহানগর বার্তা ডেস্ক : বৃহস্পতিবার খড়্গপুরের শিল্পতালুকের অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। খড়্গপুরের স্টেডিয়াম থেকে একাধিক প্রতিশ্রুতির পাশাপাশি পূজোর সময়ে বাড়তি আয়ের পরামর্শ দিলেন মাননীয়া। তিনি বলেন দুর্গাপুজো মানেই বাঙালির উৎসব। এর সাথে কতশত মানুষের রুটিরুজি জড়িয়ে থাকে। তিনি বলেন, “চা, ঝালমুড়ি, ঘুগনি নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন, বিক্রি তো হবেই, চাহিদাও খুব বাড়বে।” শুধু উৎসবের মরশুমে গা না ভাসিয়ে এভাবেও নিজের আয়ের রাস্তা খুঁজে নিন।

রাজ্যবাসীকে স্বনির্ভর করতে বরাবরই নানা উদ্যোগ নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্পের উন্নয়নেও একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছেন। সম্প্রতি ক্ষুদ্র-কুটিরশিল্প দপ্তরের উদ্যোগে শহরে জলাশয়ের কচুরিপানা দিয়ে পরিবেশবান্ধব সামগ্রী তৈরি করার কথা বলা হয়েছে। এছাড়াও নারীদের বিকাশ ও উন্নয়নেও একাধিক প্রকল্প চালু করেছেন।

আজ খড়গপুরের স্টেডিয়াম থেকে আরও ৭ হাজার নিয়োগপত্র তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সাধারণ মানুষের পাশে থাকার বার্তা, ছেলেমেয়েদের চাকরির সুযোগ, বাংলার উন্নয়ন একাধিক বিষয়ে কথা বলেন তিনি। পাশাপাশি রোজগারের পথ প্রশস্ত করতে জনতার উদ্দেশে বললেন, “চা ভরতি কেটলি নিন, সঙ্গে কয়েকটা কাপ নেবেন। এসব নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ুন। দেখবেন হু হু করে চা বিক্রি হয়ে যাবে। পরেরদিন মাকে বলুন, একটু ঘুগনি বানিয়ে দিতে। সেগুলো নিয়ে যান। দেখবেন সব বিক্রি হয়ে যাবে। একটা কৌটোয় ঝালমুড়ি ভরে নিন, অল্প বাদাম-ছোলা ফেলে দিন। দেখবেন একের পর একজন খেতে চাইবে। বিক্রি করে শেষ করতে পারবেন না।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close