দেশ

স্মার্টফোন না থাকায় বন্ধ পড়াশোনা! গরিব ছাত্র ছাত্রীদের ফোন দিতে এগিয়ে এলেন যুবক

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: প্রায় বছর খানেক আগে চিনের উহান প্রদেশে প্রথম দেখা মিলেছিল করোনা ভাইরাসের। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্ব জুড়ে এই মারণ ভাইরাসের দাপট প্রাণ কেড়েছে বহু মানুষের। শুধু তাই নয়, মানুষের দৈনন্দিন জীবনের স্বাভাবিক ছন্দকেই এলোমেলো করে দিয়েছে করোনা ভাইরাস। বিশ্বজোড়া এই মহামারীর প্রভাব পড়েছে শিক্ষাব্যবস্থাতেও।

করোনা আবহে লকডাউন পরবর্তী কালে এখন যথেষ্ট স্বাভাবিক হয়েছে জনজীবন, কিন্তু স্কুল কলেজ প্রভৃতি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলি এখনও ঠিক মতো খোলেনি। অনলাইনে ডিজিটাল মাধ্যমেই এখনও চলছে পড়াশোনা। কিন্তু এই নতুন পাঠ প্রক্রিয়ার খরচ বহন করতে না পারেনি দেশের বহু ছাত্র ছাত্রী। করোনা আবহে লেখাপড়ার পথ বন্ধ হয়ে গেছে তাঁদের। সেই সমস্ত দরিদ্র কিন্তু মেধাবী ছাত্রী ছাত্রীদের জন্য এবার এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করলেন উত্তরাখন্ডের যুবক।

জানা গেছে ২৭ বছর বয়সী শুভম ধর্মস্কতু উত্তরাখন্ডের হল্দিওয়ানির বাসিন্দা। রাজ্যের প্রত্যন্ত গ্রাম গুলিতেও যাতে অনলাইনের পঠনপাঠন পৌঁছে যায়, সম্পূর্ণ নিজস্ব উদ্যোগে তার ব্যবস্থা করছেন এই যুবক। তিনি বিভিন্ন জায়গা থেকে সংগ্রহ করছেন পুরোনো স্মার্টফোন, এবং সেগুলি গ্রামে গ্রামে গিয়ে বিলি করছেন ছাত্রীদের মাঝে। সকলেই যাতে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে, দারিদ্র্য যেন শিক্ষার পথে বাঁধা না হয়ে দাঁড়ায় সেটাই যুবকের একমাত্র উদ্দেশ্য।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, শুভমের মা একজন স্কুল শিক্ষিকা। তিনি লকডাউনের পর থেকে বাড়িতে বসেই অনলাইন ক্লাস নিচ্ছেন। তাঁর কাছ থেকেই শুভম জানতে পারেন যে অর্ধেকের বেশি ছাত্রছাত্রীই ক্লাস করতে পারছে না। এবং তারপরেই এই উদ্যোগের কথা মাথায় আসে তাঁর।

ইতিমধ্যেই উত্তরাখন্ডের পার্বত্য এলাকায় প্রত্যন্ত গ্রাম গুলিতে বেশ কিছু ফোন পৌঁছে দিতে পেরেছেন ওই যুবক। সাহায্যের জন্য তিনি সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। জানা গেছে, ফোন দেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি ছাত্রদের চেয়ে ছাত্রীদের অগ্রাধিকার দিচ্ছেন। “বাড়িতে যদি একটা ফোন থাকে, ছেলেরাই সেটা পায়। মেয়েরা নয়। তাই আমি আগে মেয়েদের কাছে ফোন দিচ্ছি”, জানিয়েছেন শুভম। তাঁর উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকেই।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close