ভাইরাল

বউকে বলপূর্বক আটকে রেখেছে শ্বশুরবাড়ি, ধর্নায় বসলেন জামাই

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: বিয়ে করা বউকে নিজেদের কাছে আটকে রেখেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন, এমনটাই অভিযোগ তুলে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় বসলেন এক ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়া জেলার হরিণঘাটা থানা এলাকার সোনাখালি গ্রামে। শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে ‘বলপূর্বক’ তাঁর বউকে আটকে রাখার অভিযোগ তুলেছেন বাবু মল্লিক নামের বছর আঠাশের ওই ব্যক্তি। শুধু তাই নয়, বউকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবিতে রবিবার গভীর রাত থেকে বউয়ের বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেছেন তিনি।

 

জানা যায়, বছর আঠারোর সঙ্গীতার বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর বাড়ি ফিরলে ওই দিনই তাকে আটকে রাখা হয় বলে অভিযোগ। এমনকি, স্বামীর সঙ্গে সমস্ত রকম যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয় শ্বশুরবাড়ির তরফ থেকে। প্রায় মাসখানেক নতুন বউয়ের সঙ্গে কোনোরকম ভাবে যোগাযোগ করতে না পেরে অবশেষে রবিবার রাত থেকে ওই বাড়ির সামনে ধর্নায় বসার সিদ্ধান্ত নেন বাবু মল্লিক। তাঁর দাবি, ৩রা আগস্ট শুধুমাত্র রেজিস্ট্রি নয়, মন্দিরে গিয়ে সামাজিক নিয়ম মেনেই বিয়ে করেছেন তাঁরা। কিন্তু স্ত্রীর বাপের বাড়ির পরিজনেরা জোর করে তাঁকে বন্দী করে রেখেছেন। স্ত্রীকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে প্ল্যাকার্ড এবং বিয়ের বেশ কয়েকটা ছবি সামনে রেখে স্ত্রীর বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন ওই জামাই।

 

বলা বাহুল্য, ঘটনার জানাজানি হতেই সকাল থেকে যথারীতি এলাকায় উৎসুক মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। এ বিষয়ে সঙ্গীতার অভিযুক্ত বাপের বাড়ির লোকেদের দাবি, তাঁরা তাঁদের মেয়েকে জোর আটকে রাখেননি। মেয়ে নাকি আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল, তাই অন্যত্র রাখা হয়েছে তাকে।এদিকে স্ত্রীকে বাড়ি ফিরিয়ে না যেতে পারলে নিজের অবস্থান থেকে এক পাও নড়বেন না বলেই জানিয়েছেন ওই স্বামী।

 

প্রসঙ্গত, গত আগস্ট মাসের তিন তারিখে বিরহি হালদার পাড়ার বাসিন্দা ওই ব্যক্তি সোনাখালি গ্রামের বাসিন্দা সঙ্গীতা ঘোষকে রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেন। কিছুকাল আগে নেট দুনিয়া দেখেছিল ধর্নায় বসে এক যুবক কীভাবে প্রেমিকাকে বিয়ের জন্য রাজি করায়। বাবু মল্লিক কি সেইরকম সাফল্য পাবেন? সেটাই এখন দেখার।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close