আন্তর্জাতিক

মাত্র ১৪ বছর বয়সে বিদায় বিশ্ব প্রতিভার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাসের অতিমারীর প্রকোপে যখন নাজেহাল গোটা বিশ্ব, ভাইরাসের টিকা তৈরি করতে যখন নাভিশ্বাস উঠছে বড় বড় দেশগুলিরও, তখনও কিন্তু একটা মারণ রোগ আগের মতোই রমরমিয়ে বিরাজ করে চলেছে পৃথিবীর বুকে। ক্যান্সার বা কর্কট রোগের কাছে যে আজও মানুষ করোনার মতোই অসহায়, আরও একবার তার প্রমাণ পাওয়া গেল। এবার ক্যান্সারের থাবায় বলি হল ১৪ বছরের এক তাজা প্রাণ।

জানা গেছে বেন ওয়াটকিনস নামে বছর চোদ্দর এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে ক্যান্সারে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত একটি রান্না বিষয়ক রিয়েলিটি শো হল ‘মাস্টারসেফ’। ওই রিয়েলিটি শো-এর জুনিয়র বিভাগের ২০১৮ সালের সিজনে অন্যতম প্রতিযোগী ছিলেন বেন ওয়াটকিনস। তিনি সেফ হিসেবে আমেরিকায় বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছিলেন। মাত্র ১৪ বছরেই থেমে গেল আমেরিকার সেই জুনিয়র মাস্টারসেফের জীবন।

‘মাস্টারসেফ জুনিয়র’ এর প্রতিযোগী বেন ওয়াটকিনস দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন। অবশেষে দুরারোগ্য এই ব্যাধির কাছে হার মানলেন তিনি। সোমবার তাঁর মৃত্যুর পর তাঁর পরিবারের লোকেরা অ্যাটর্নির মাধ্যমে এই মৃত্য সংবাদ জানান। তাঁরা লেখেন, ” বেন এই পৃথিবীতে তাঁর ১৪ টা বছরের মধ্যে বেশিরভাগটাই অসুস্থতায় ভুগে কাটিয়েছে। কিন্তু অবশেষে ওর কষ্ট থেকে ও মুক্তি পেল। বেন জানে সকলে ওকে ভালোবাসে।”

বেন ওয়াটকিনসের এই অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন অনেকেই। ‘মাস্টারসেফ’-এর বিচারক গর্ডন রামসে এদিন বেনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে নিজের ইনস্টাগ্রামে লেখেন, “মাস্টারসেফ রান্নাঘরের একটা মাস্টারকে আজ আমরা হারালাম। বেন, তুমি অসাধারণ প্রতিভাবান একজন সেফ ছিলে। তোমার ছোটো জীবনে অনেক বড় বড় কঠিন ওঠানামা তুমি দেখেছ। কিন্তু কখনোই তুমি ভেঙে পড়োনি।শুটিং ফ্লোরে তোমার সাথে কাটানো হাসি ঠাট্টার মুহূর্ত গুলো আমি কোনোদিন ভুলব না। আমার ছোট্ট বন্ধুকে হারিয়ে আজ আমার হৃদয় ভেঙে গেছে। আমার সমস্ত ভালোবাসা বেন ওয়াটকিনসকে পাঠাচ্ছি।” শুধু গর্ডন রামসেই নয়, বেন ওয়াটকিনসের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন আমেরিকার আরো অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব। মারন রোগের সঙ্গে লড়াইয়ে বেনের পরাজয়ে শোকের ছায়া নেমেছে মার্কিন মুলুকে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close