আন্তর্জাতিক

মসজিদে আসা ব্যক্তিকে পিটিয়ে খুন করল উত্তেজিত জনতা, ফের উত্তপ্ত বাংলাদেশ

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: জনতার রোষ যে কত ভয়ানক হতে পারে আরো একবার তার সাক্ষী থাকল বিশ্ব। বাংলাদেশে ধর্মের অবমাননার অভিযোগে পিটিয়ে খুন করা হল এক ব্যক্তিকে। জানা গেছে শতাধিক মানুষ মিলে ওই ব্যক্তিকে আক্রমণ করেন। শুধু তাই নয়, হত্যার পর তাঁর মৃতদেহে আগুনও লাগিয়ে দেওয়া হয় বলে সূত্রের খবর। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হলে শিউরে উঠেছেন নেটিজেনরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের পাটগ্রামের বুড়িমারি ইউনিয়নে। ওই এলাকার এক মসজিদে আছরের নামাজ চলছিল। নামাজের পর গুজব ছড়ায় এক ব্যক্তি ধর্মের অবমাননা করেছেন। এহেন গুজবের পরেই ওই ব্যক্তির উপর চড়াও হন শত শত জনতা। সবাই মিলে পিটিয়ে হত্যা করেন ওই ব্যক্তিকে।

এই ঘটনার পর লালমনিরহাট জেলার পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, “যতটুকু শুনেছি দু’জন লোক মসজিদে হোন্ডা (মোটরসাইকেল) নিয়ে নামাজ পড়তে এসেছিল। আছরের নামাজ।নামাজ পড়া শেষে, যে কোনো কারণেই হোক তাদের সঙ্গে মসজিদে যারা ছিল, তাদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। ওনারা নাকি একটা শেলফে পা দিয়েছিলেন। তো সেটা নিয়ে কেউ বলছেন কোরান শরীফের ওপর পা পড়েছে- এরকম একটা গুজব হয়তো ছড়িয়ে পড়েছে।”

আবিদা সুলতানা আরো জানান, “এরপর অনেক লোকজন জড়ো হয়ে যায়। সেসময় পুলিশ আসে। এর মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের একজন মেম্বার তাদের নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের একটা রুমের মধ্যে আটকে রাখে। পরে পুলিশ আসলে হ্যান্ডওভার করবে এই ভেবে। পুলিশ আসার মধ্যেই অনেক লোক জড়ো হয়ে ইউনিয়ন পরিষদের গ্রিল ভেঙে বিভিন্ন দিক দিয়ে ওখানে ঢুকে পড়ে।দুজন ছিল। তাদের একজনকে জোর করে নিয়ে যায়। ওসি একজনকে রেসকিউ করে সরিয়েছে। আরেকজনকে তারা ওইখানে পিটিয়ে মেরেছে। লাশটা তারা নিয়ে গেছে এবং আগুন দিয়েছে।”

জানা গেছে, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির পরিচয় সম্বন্ধে এখনও বিস্তারিত ভাবে কিছু জানা যায় নি। শুধুমাত্র গুজবের বশে আইন হাতে তুলে নিয়ে এভাবে মানুষকে হত্যার সমালোচনায় সামিল হয়েছেন অনেকেই।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close