আন্তর্জাতিকদেশ

বিশ্বের ১০০-র বেশি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সৌমিত্রর মৃত্যুসংবাদ, শ্রদ্ধাজ্ঞাপন দুনিয়ার

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: দীপাবলির পর দিন সমস্ত আলো নিভিয়ে, বাংলার সমস্ত সিনেমাপ্রেমীদের কাঁদিয়ে চিরতরে বিদায় নিয়েছেন ফেলুদা। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ চলচ্চিত্র জগত। কার্যত অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। অভিনয় জগতের তারকা থেকে শুরু করে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন সকলেই। এমনকি কলকাতার সেই হাহাকারের আঁচ গিয়ে লেগেছে আন্তর্জাতিক মহলেও।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর রাজ্যের সংবাদমাধ্যম গুলি তো বটেই, সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমেও বেশ গুরুত্বের সঙ্গেই প্রকাশ করা হয়েছিল এই মৃত্যুসংবাদ। দিল্লি মুম্বাই চেন্নাইয়ের ইংরাজি খবরের কাগজ গুলোতেও প্রথম পাতায় স্থান পেয়েছিলেন বাঙালির প্রিয় ‘অপু’। কিন্তু সেই সঙ্গে এবার উঠে এসেছে নজিরবিহীন তথ্য। শুধু মাত্র ভারতেই নয়, জানা গেছে গোটা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুসংবাদ। বাংলা চলচ্চিত্র জগতের প্রবাদপ্রতিম এই ব্যক্তিত্ব যে আন্তর্জাতিক মহলেও বিশেষ জনপ্রিয় ছিলেন, এই তথ্যই তাঁর প্রমাণ।

জানা গেছে, গোটা দুনিয়ার প্রায় ১০০টির বেশি সংবাদপত্র, নিউজ পোর্টাল এবং ম্যাগাজিনে ছাপা হয়েছে বর্ষীয়ান এই বাঙালি অভিনেতার মৃত্যুসংবাদ। তার মধ্যে আছে চিন, জাপান, আমেরিকা, ইতালি, মালয়েশিয়া, ইংল্যান্ড, রাশিয়া, ফ্রান্স, স্পেন, আরব, ইজরাইল, ওমান, কানাডা, বাংলাদেশ, ফিলিপিন্স প্রভৃতি আরো নানা দেশের সংবাদমাধ্যম। ইংরাজি নয়, অভিনেতার ছবি সহ আঞ্চলিক ভাষাতেই প্রকাশিত হয়েছে সেই সমস্ত প্রতিবেদন।

মালয়েশিয়ায় প্রকাশিত সংবাদের শিরোনাম, “ভারতের লেজেন্ড, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত সৌমিত্র চ্যাটার্জী”। ইতালির শিরোনাম অনুযায়ী, “কোভিড আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু সৌমিত্র চ্যাটার্জীর, ভারতীয় সিনেমার লেজেন্ড”। ইংল্যান্ডের শিরোনাম বলেছে, “কোভিড জটিলতায় মৃত্যু প্রবাদপ্রতিম বাঙালি অভিনেতা সৌমিত্র চ্যাটার্জীর”। এমনই আরো নানা দেশের সংবাদমাধ্যম এভাবে শোক প্রকাশ করেছে বাঙালি অভিনেতার মৃত্যুতে।

বস্তুত, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে মুম্বাইয়ের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির দায় সারা শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং অদ্ভুত নীরবতা ফেলুদার ভক্তদের মনে যে অস্বস্তির কাঁটা তৈরি করেছিল, আন্তর্জাতিক স্তরে এই সম্মান দেখে নিঃসন্দেহে তাঁরা খানিক স্বস্তি পাবেন।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close