দেশ

অমূল্য রতন! ২০০ টাকার জমি খুঁড়ে ৬০ লাখের হিরে পেল গরিব চাষী, রাতারাতি ঘুরল ভাগ্যের চাকা

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: জীবনের বিচিত্র গতি যে কোন পথে এগিয়ে নিয়ে চলে মানুষকে, তার হদিশ আগে থেকে পায় না সে। ভাগ্য কোনো নতুন মোড় নিলে তাতে মানুষ শুধু চমকে ওঠে মাত্র। এ ছাড়া আর কিছুই তার হাতে থাকে না তাঁর। জীবনের তেমনই এক বিচিত্র মোড়ে এসে চমকে গেছেন লখন যাদব।

মধ্যপ্রদেশের গরিব কৃষক লখন যাদব চাষ করার জন্য ভাড়া নিয়েছিলেন এক সামান্য জমি। মাত্র ২০০ টাকা ভাড়ার সেই জমিই রাতারাতি ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়ে দিয়েছে লখন যাদবের। তিনি এখন হয়ে গেছেন কোটিপতি!

কীভাবে হল এই অসাধ্য সাধন? জনপ্রিয় সংবাদসংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী, লখন যাদব জমি খুঁড়ে খুঁজে পেয়েছেন অমূল্য রত্ন। একটি হিরের টুকরো লখন যাদবের সেই ভাড়া করা জমি থেকে পাওয়া গেছে, যার দাম কম করে হলেও অন্তত ৬০ লক্ষ টাকার কাছাকাছি। নিজের ভাগ্যের এই রাতারাতি ভোল বদলে চমকে উঠেছেন লখন যাদব।

জানা গেছে, জমি খুঁড়ে যে তুচ্ছ নুড়িপাথরটি লখন যাদব খুঁজে পেয়েছেন, আসলে সেটা ১৪.৯৮ ক্যারাটের আস্ত হিরে। গত ৫ ডিসেম্বর এই হিরের টুকরোটির নিলাম হয়, নিলামে ৬০.৬ লক্ষ টাকা দাম উঠেছে বলে জানা গেছে ওই হিরের।

টাকা নিয়ে কী করবেন লখন? উচ্চাশা নেই বলেই জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, “খুব বড়ো কিছু করব না। আমি শিক্ষিত নই। আমি টাকাটা ব্যাঙ্কের ফিক্সড ডিপোজিটে রেখে দেব। ভবিষ্যতে আমার ছেলে মেয়েরা ওই টাকা দিয়ে ভালো করে পড়াশোনা করতে পারবে।”

এছাড়া ওই টাকার কিছু অংশ দিয়ে লখন যাদব ২ হেক্টর জমি কিনেছেন। ২টো মহিষও কেনা হয়েছে বলে জানা গেছে। প্রথম ১ লক্ষ টাকা দিয়ে একটি বাইক কিনেছেন লখন।

তিনি জানিয়েছেন মাটি খুঁড়ে ওই পাথর পাওয়ার পর ধুলো ঝেড়ে তিনি বুঝতে পেরেছিলেন এ কোনো সাধারণ পাথর নয়। কিন্তু তা যে এভাবে তাঁর ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়ে দেবে, ভাবতে পারেননি তিনি। এছাড়া, ওই জমিতে আরো কিছু দিন কাজ চালিয়ে যেতে চান লখন যাদব। তাঁর আশা আরো হিরে ওখান থেকে পাওয়া যেতে পারে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close