দেশরাজনীতি

আন্দোলনে সুর নরম, চাষিদের কথা মেনে বৈঠকে রাজি মোদি সরকার

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: প্রবল চাপের মুখে অবশেষে পিছু হঠল কেন্দ্র। কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি হল মোদি সরকার। বেশ কিছু দিন ধরেই লাগাতার কৃষক আন্দোলনের ঢেউ এসে পড়ছিল দিল্লির দরবারে। তার জেরেই অবশেষে সুর নরম করলেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

শনিবার সন্ধ্যায় কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। চাষিরা চাইলে ৩ ডিসেম্বরের আগেই বৈঠকে বসতে রাজি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক, এমনটাই জানালেন তিনি। দেশ জুড়ে কৃষক বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

বস্তুত, কৃষক আন্দোলনের চাপে আগেই কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার জানিয়েছিলেন, ৩ ডিসেম্বর কৃষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসবে সরকার। কিন্তু সেই প্রস্তাবে গররাজি ছিল কৃষক সংগঠনের প্রতিনিধিরা। এবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানালেন, কৃষকরা চাইলে আগেই বৈঠকে বসবে সরকার। তবে তার আগে কিছু শর্ত মানতে হবে সংগঠনগুলিকে।এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “অনেক জায়গাতেই শীতকালের এই প্রবল ঠান্ডায় হাইওয়ের উপর ট্রাক্টর এবং ট্রলিতে রাত কটাচ্ছেন কৃষকরা। আমি তাঁদের আবেদন করছি, দিল্লি পুলিশ আপনাদের বড় ময়দানে সরিয়ে নিয়ে যেতে প্রস্তুত। দয়া করে সেখানে যান। সেখান যান। সেখানে আপনাদের আন্দোলন করার জন্য অনুমতি দেবে পুলিশ।” জানা গেছে, দিল্লির বুরারির শান্ত নিরাঙ্কারি ময়দানে তাঁদের আন্দোলন সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন অমিত শাহ। সেখানে পানীয় জল ও অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা সরকার করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বস্তুত, সম্প্রতি কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে জারি করা হয়েছে নতুন কৃষি আইন। এই আইন পাশ হওয়ার আগে থেকেই খসড়া নিয়ে কৃষকদের মধ্যে অসন্তোষ তৈরি হয়েছিল। গর্জে উঠেছিলেন বিরোধীরাও।কিন্তু প্রথম থেকেই বিক্ষোভকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে রাজি ছিল না মোদি সরকার।তবে গত কয়েকদিন ধরে যেভাবে লাগাতার বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন পাঞ্জাব-সহ একাধিক রাজ্যের কৃষকরা, তাতে বিষয়টাকে গুরুত্ব সহকারে দেখতে বাধ্য হল কেন্দ্র।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close