দেশ

“নতুন আইন মহিলাদের অধিকার সুনিশ্চিত করবে”, হাথরাস উত্তেজনার মাঝেই বার্তা প্রধানমন্ত্রীর

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক:দেশ জুড়ে হাথরাস কান্ড নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই দেশে লিঙ্গ বৈষম্য দূর করার বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবার হিমাচল প্রদেশের একটি জনসমাগমকে উদ্দেশ্য করে ভাষণ দিতে গিয়ে এরূপ বক্তব্য পেশ করেন তিনি। তিনি জানান পরিবর্তিত নতুন শ্রম আইন লিঙ্গ সমতাকে নিশ্চিত করবে, এটাই তাঁর বিশ্বাস।

 

হিমাচল প্রদেশের মানালি জেলায় আয়োজিত একটি সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। উত্তর প্রদেশের হাথরাস গ্রামের দলিত তরুণীর গণধর্ষণের ঘটনায় দেশ জুড়ে যে উত্তাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তার আবহেই এদিন লিঙ্গ সমতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। ওই সভায় তিনি জনগণকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “দেশে এখনও এমন অনেক কাজের ক্ষেত্র আছে যেখানে মহিলারা কাজ করতে পারেন না। সেসব কাজে তাঁদের অনুমতি দেয় না সমাজ। কিন্তু পরিস্থিতি এখন বদলে গেছে।” প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অনুযায়ী সম্প্রতি শ্রম আইনের যে পুনঃসংস্কার করা হয়েছে তাতে নাকি কর্মক্ষেত্রে মহিলাদের সবরকম সুযোগ সুবিধা এবং অধিকার দেওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে। “এখন শ্রম আইনের সংস্কার করা হয়েছে আর তার মাধ্যমেই এখন মহিলাদেরকেও পুরুষদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চলার সমস্ত অধিকার দেওয়া হয়েছে”, জানান তিনি।

 

এখানেই থেমে থাকেননি প্রধানমন্ত্রী। কৃষি আইন নিয়ে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের দিকে ইঙ্গিত করে এদিন বিরোধীদের খোঁচাও দেন তিনি। বলেন, “সমাজ ব্যবস্থা পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে সৃষ্ট নতুন আইন বা আইনের সংস্কার নিয়ে কেউ কেউ রাজনীতি বা বিরোধিতা করতেই পারে, কিন্তু এই দেশের অগ্রগতি তাতে থেমে থাকবে না কিছুতেই।”

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত মাসে পার্লামেন্টের উভয় সভাতে নতুন বিল পাশ হয়। এরপর সেগুলি রাষ্ট্রপতির সম্মতি লাভ করে গত ৩০ সেপ্টেম্বর। বিরোধীদের বিরোধিতা সত্ত্বেও তিনি যে দেশের মানুষের হিতার্থে তাঁর কাজ করে যাবেন, এদিন এই বার্তাই দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close