রাজ্যরাজনীতি

‘মমতাই মা সারদা, সিস্টার নিবেদিতা, মাদার তেরেসা!’ নিজের মন্তব্যে অটল নির্মল মাঝি

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: মা সারদার সাথে মমতার তুলনা এনে বিতর্কে জড়িয়েছেন নির্মল মাঝি। তাঁর মন্তব্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন বেলুড় মঠ কর্তৃপক্ষ। কিন্তু তারপরও নিজের মন্তব্যে অনড় রয়েছেন নির্মল। গতকাল এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকরে তিনি বলেন, “আমি মনে করি এই শতাব্দীতে আমার কাছে মা সারদা, সিস্টার নিবেদিতা, মাদার তেরেসা, আমার চেতনা-চৈতন্য-আবেগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মা সারদা নেতৃত্ব দিয়েছিলেন একঝাঁক তরুণ, মহাপ্রাণ, মহাজীবন মঠের শিষ্যদের। তাঁদের দিয়ে রামকৃষ্ণ মিশন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি মানুষের সেবায় নিবেদিত প্রাণ ছিলেন। আমার ঘরের দুর্গা আমার মা, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে আমি দেখি মা সারদাকে, মাদার টেরিজাকে, সিস্টার নিবেদিতাকে। তিনি একঝাঁক কর্মযোগী, যুবক-ছাত্র-কিছু মধ্যবয়স্ক লোককে নিয়ে, বাংলার দরিদ্র মানুষ, যাঁদের নুন আন্তে পাত্তা ফুরোয়, গ্রামের গরীব মানুষ, সকলের কাছে সবুজের শ্যামলিমায় পূজিত হন।”

তাঁর মন্তব্য ঘিরে যে বিতর্ক সে সম্পর্কে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে নির্মল বাবু আরো‌ বলেন,”আমি কোনও বিতর্কে যাব না। একজন আধ্যাত্মিক পুরুষ আমাকে এ কথা বলেছেন। আমি তাঁকে বিশ্বাস করি। এটা গল্প নয়, ওঁর অনুভূতি। আমি তো মা সারদাকে দেখিনি। আর মঠের যিনি বললেন তিনিও দেখেননি।”

নির্মল মাঝির মন্তব্যে বিতর্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে বেলুড়মঠে। এক বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যমে রামকৃষ্ণ মঠের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ বলেন, ‘রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশনের সকল সন্ন্যাসী ব্রক্ষচারী অত্যন্ত দুঃখ ও ক্ষোভের সাথে মনে করছে উপরোক্ত নেতা, আমাদের পরম আরাধ্যা শ্রী শ্রী মা সারদা দেবীর মর্যাদাহানি করেছেন।’ কতৃপক্ষের পাশাপাশি ভক্তকুলের একাংশ নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই বক্তব্যের বিরুদ্ধে।

 

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close