খবরদেশ

ভারতে যান, কিন্তু কাশ্মীরে যাবেন না! মার্কিন নাগরিকদের নির্দেশ হোয়াইট হাউসের

মহানগর বার্তা ডেস্ক: ভারতে গেলেও জম্মু কাশ্মীরে না! মার্কিন নাগরিকদের জানিয়ে দিল হোয়াইট হাউস। সম্প্রতি, ভারতে যাওয়া মার্কিন পর্যটকদের জন্য ১ থেকে ৩ লেভেলের পরামর্শ তালিকা প্রকাশ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তাদের স্টেট বিভাগের তরফে ওই পরামর্শ তালিকার সঙ্গে ফের যোগ হয়েছে লেভেল ৪। যেখানে স্পষ্টতই উল্লেখ করা হয়েছে, ভারতে সাময়িককালে অপরাধের সংখ্যা, জঙ্গি আক্রমণের আশঙ্কা বেড়েছে, তাই ভারতে বেড়াতে গেলেও কোনও ভাবেই জম্মু ও কাশ্মীরে যাওয়া যাবে না। বরঞ্চ আর এক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল লাদাখে যাওয়ার ক্ষেত্রে বাধা নেই মার্কিনীদের।

এই নিষেধাজ্ঞার পরেই শোরগোল পড়েছে। ফের প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কি উপত্যকায় পর্যটকদের নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করতে ব্যর্থ নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন সরকার! নাকি পাকিস্তানের উপরে চাপ বাড়াতেই এই কৌশল নিয়েছে আমেরিকা!

একাধিক প্রশ্নের আবহেই প্রকাশ্যে এসেছে এই সংবাদ। যেখানে বলা হয়েছে, ভারতে জঙ্গি শুধু নয়, ধর্ষনের ঘটনা বাড়ছে। অপরাধ বেড়েছে। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে দুষ্কৃতীদের লক্ষ্য হতে পারেন পর্যটকরা। তাই তাঁদের সাবধান করেছেন আমেরিকা। এমনকি বলা হয়েছে, কোনও জরুরি পরিস্থিতি হলে আমেরিকার তরফে সীমিত ক্ষমতা রয়েছে পর্যটকদের জন্য। তাই যেন এই পরামর্শ মানা হয়।

প্রসঙ্গত, করোনা কালে পর্যটন প্রায় বন্ধ থাকলেও বর্তমানে ফের স্বাভাবিক হচ্ছে সবটা। ঠিক এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ফের নতুন করে নির্দেশ দিচ্ছে দেশগুলো। আমেরিকা নিজেদের দেশের নাগরিকদের জন্য একাধিক পরামর্শ বা নির্দেশ প্রকাশ করেছে ঠিক সেই পরামর্শেই বলা হয়েছে এমন।

যদিও জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পরও অশান্তি থামেনি সেখানে। একের পর এক জঙ্গি, পুলিস সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি। প্রশ্ন উঠেছে কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে। এদিকে রাজনৈতিকভাবেও অশান্তি রয়েছে উপত্যকায়। ঠিক এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে আমেরিকার এই নির্দেশ বা পরামর্শ ভারতের অস্বস্তি বাড়াবে বলেই মত অনেকের। আবার অন্য এক অংশ বলছেন, এই নির্দেশ পাকিস্তান, জঙ্গি কার্যকলাপ এবং অপরাধে জড়িত দেশগুলোর ক্ষেত্রে চাপ বাড়াতে পারে, ভারতের নয়!

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close