রাজ্যরাজনীতি

বিদ্যাসাগর- বীরসা মুন্ডা, বাঙালি মনীষীদের আর কত অপমান? বিস্ফোরক নুসরাত

মহানগর বার্তা ওয়েবডেস্ক: ফের বাংলার সংস্কৃতি, ইতিহাস সম্পর্কে অজ্ঞতার অভিযোগ উঠল ভারতীয় জনতা পার্টির বিরুদ্ধে। কাঠগড়ায় এবার স্বয়ং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বাংলার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে রাজনৈতিক স্বার্থে অপব্যবহার করার প্রতিবাদে এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মুখ খুললেন তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহান। সোশ্যাল মিডিয়ায় অমিত শাহকে সরাসরি আক্রমণ করে তিনি বলেন, “বিদ্যাসাগর থেকে বিরসা মুন্ডা, বাংলার আইকনদের বারবার এমন অপমানের মানে কী?”

বস্তুত ঘটনার সূত্রপাত গতকাল। পশ্চিমবঙ্গ সফরে এসে বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ছিলেন বাঁকুড়ায়। বিজেপির নেতাদের ঘোষণা ছিল, অমিত শাহ বাঁকুড়ায় গিয়ে মালা দেবেন আদিবাসী নেতা বীরসা মুণ্ডার মূর্তিতে। কিন্তু বাস্তবে মালা দেওয়া হয় বাঁকুড়ার পোয়াবাগানের এক মূর্তির নীচে রাখা ছবিতে। আদিবাসী সংগঠনের তরফে অভিযোগ আদেও সেটা বীরসা মুন্ডার মূর্তি নয়। এ বিষয়ে আদিবাসী সংগঠন ‘ভারত জাকাত মাঝি পারগানা মহল’-এর নেতা সনগিরি হেমব্রমের বক্তব্য, ‘‘ওটা বীরসা মুণ্ডার মূর্তি নয়, জনৈক আদিবাসী শিকারির। ব্যাপারটা জেলা বিজেপি নেতৃত্বের নজরে আনা হয়েছে।’’

স্বভাবতই এই ঘটনার পর শুরু হয় বিতর্ক। একে প্রবাদপ্রতিম আদিবাসী নেতা বীরসা মুন্ডার অপমান হিসেবে দেখেছেন অনেকেই। বিজেপির তরফ থেকে সাফাই, ‘‘ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। যখন জেনেছি, মূর্তিটি বীরসা মুণ্ডার নয়, ছবির বন্দোবস্ত করেছি।’’ এরপরই বিজেপির বাংলার সংস্কৃতি সম্পর্কে অবহেলা, অপমানের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় সোচ্চার হয়েছেন বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহান।

নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে এদিন নুসরাত জানিয়েছেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর থেকে বীরসা মুন্ডা, বরাবরই বিজেপি বাঙালির প্রবাদপ্রতিম মনীষীদের অশ্রদ্ধা করে এসেছে। তিনি লেখেন, “আর কতবার আপনারা রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অপব্যবহার করবেন?”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগেও বিজেপির বিরুদ্ধে বাঙালি সংস্কৃতির প্রতি অশ্রদ্ধার অভিযোগ উঠেছিল। কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে ঢুকে প্রবাদপ্রতিম বাঙালি ব্যক্তিত্ব ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মূর্তি ভেঙে ফেলার অভিযোগ উঠেছিল তাঁদের বিরুদ্ধে। সেই ঘটনার রেশ টেনেই এদিন বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন নুসরাত জাহান।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close