রাজ্যরাজনীতি

‘ভালোবাসা কোনো ধর্ম মানে না’, লাভ জিহাদ বিতর্কে বিজেপিকে কড়া বার্তা নুসরাতের

মহানগরবার্তা ওয়েবডেস্ক: বিবাহের নামে ধর্মান্তর বা লাভ জিহাদ নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই দেশ জুড়ে দানা বেঁধেছে একাধিক বিতর্ক। বিভিন্ন রাজ্যে, বিশেষত বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলিতে ইতিমধ্যেই এই ধর্মীয় প্রতারণা রুখতে কড়া আইন প্রণয়নের ইচ্ছা প্রকাশ করা হয়েছে। কর্ণাটক, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশের পর একই পথে হেঁটেছে উত্তর প্রদেশ সরকারও। লাভ জিহাদ মোকাবিলায় এহেন তৎপরতার আবহেই এবার বিজেপিকে তোপ দাগলেন নুসরাত জাহান।

শনিবার কলকাতা শহরের একটি জগদ্ধাত্রী পুজোর অনুষ্ঠানে যোগ দেন জনপ্রিয় টলিউড অভিনেত্রী এবং তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহান। সেখানেই লাভ জিহাদ নিয়ে তৈরি হওয়া সাম্প্রতিক বিতর্ক বিষয়ে মুখ খোলেন তিনি। শুধু তাই নয়, গেরুয়া শিবিরের লাভ জিহাদ বিরোধী আইন প্রণয়নের প্রচেষ্টার কড়া সমালোচনাও করেন তিনি। তিনি বলেন, “এটা অত্যন্ত দুঃখের বিষয়। লাভ এবং জেহাদ কখনও এক হতে পারে না। ভালবাসা সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত। আমি কাকে ভালবাসব তা নিয়ে কারও কিছু বলার থাকতে পারে না। বিজেপিকে আমার একটাই পরামর্শ তারা আগে ভালবাসা যে ব্যক্তিগত সে সম্পর্কে বুঝুক। তাদের ভালবাসতেও শেখা উচিত।”

বস্তুত, ধর্মীয় অনুশাসনের বেড়াজাল কোনোদিনই সেভাবে বাঁধতে পারেনি তৃণমূল কংগ্রেসের তারকা সাংসদ নুসরাতকে। মৌলবাদকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বারবার তিনি হাজির হয়েছেন একাধিক হিন্দু অনুষ্ঠানে। সে বিষয়ে নিন্দুকদের তাঁর জবাব, “আমি যখন মাজারে যাই তখন তা নিয়ে কারও কোনও মাথাব্যথা থাকে না। এমনকী কোনও সংবাদমাধ্যমেও তা প্রকাশিত কিংবা প্রচারিত হয় না। কিন্তু আমি যখন কোনও হিন্দুদের অনুষ্ঠানে অংশ নিই তখন তা নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। আমি নুসরত। আমি বাঙালি মুসলমান পরিবারের মেয়ে। তবে আমি ধর্মনিরপেক্ষ। আমি প্রথমত একজন বাঙালি। আমরা ধর্মনিরপেক্ষভাবে সকলকে ভালবাসতে পারি। আর এটা কোনও ভুল নয়।”

উল্লেখ্য, বছর দুয়েক আগে নিখিল জৈনের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন নুসরত। বিয়ের পর সাংসদে যাওয়ার সময় তাঁর মাথায় ছিল সিঁদুর এবং মঙ্গলসূত্র। এরপর থেকে একাধিক হিন্দু অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন বসিরহাটের লোকসভা সাংসদ, কখনোই মৌলবাদের তর্জনী তাঁকে বাঁধা দিতে পারে নি।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
নিজের লেখা নিজে লিখুন
Close
Close