fff
টেকনলজি

ওয়ানপ্লাসকে টেক্কা দিচ্ছে Oppo A77, মাত্র ১৫,০০০ টাকা দামেই মিলছে আকর্ষণীয় ফিচার

কম দাম, কিন্তু ভরপুর ফিচার্স আছে এমন স্মার্টফোনের দুনিয়ায় ওপো’র জুড়ি মেলা ভার। এবার ওপো ব্যবহারকারীদের জন্য সুখবর, বাজারে চলে এসেছে নতুন ওপো এ৭৭ (Oppo A77) লেটেস্ট মডেল ।Oppo A77 মডেলের যা ফিচার তা সহজেই পাল্লা দিতে পারবে ওয়ান প্লাস ১০-টি এর সঙ্গে। যদিও দুজনের মধ্যে দামের ফারাক প্রায় ৩৫ হাজার টাকা!

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) মডেলের মেন ফিচার হল সুপারফাস্ট চার্জিং এবং ব্যাটারির লংজিবিটি। পাশাপাশি মূল ক্যামেরাটি ৫০ মেগাপিক্সেলের! দাম মাত্র ১৫,৪৯৯ টাকা! অথচ ওয়ান প্লাস ১০-টি মডেল কিনতে হলে আপনার পকেট থেকে খসবে ৪৯,৯৯৯ টাকা! যদিও ওয়ান প্লাস ব্যবহারকারীদের বক্তব্য, তাদের ফোনের লংজিবিটি এবং প্রসেসর ওপোর থেকে অনেক ভালো হয়।

কোন মডেল বেশি ভালো সেই তুলনায় না গিয়ে, আমরা বরং চোখ রাখি ওপো এ৭৭ (Oppo A77) মডেলের মূল ফিচার্সগুলোর দিকে।

ওপো এ৭৭ মডেলে কী কী আছে?

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) মডেলের ডিসপ্লে ৬.৫৬ ইঞ্চি। এইচডি প্লাস এই ডিসপ্লের রেজোলিউশন ৭২০×১৬১২ পিক্সেল। পাশাপাশি রিফ্রেশ রেট 90 Hz। ফলে oppo এর আগের মডেলগুলোর থেকে এখানে অনেক বেশি হাই (high)গ্রাফিক্সের গেম খেলার সুবিধা পাওয়া যাবে।

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) মডেলে ডুয়াল সিম সিস্টেম আছে। সেই সঙ্গে এই মডেলটি ওয়াটার রেজিস্ট্যান্স। অর্থাৎ জলে পড়ে গেলেও আপনার ফোন নষ্ট হবে না।

ওপো এ৭৭ এর (Oppo A77) প্রসেসরে একটা দারুণ ব্যাপার যোগ হয়েছে। অক্টা-কোর মিডিয়াটেক ৮১০ প্রসেসরের পাশাপাশি ৬ জিবি ব়্যাম আছে। সেই সঙ্গে ৫ জিবি ভার্চুয়াল ব়্যাম‌ও আছে। ওপো এ৭৭ এর অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ১২ (Android)। এর ওপর ওপো এর নিজস্ব ColorOS 12 অপারেটিং সিস্টেমের লেয়ার দেওয়া আছে, যার ফলে প্রসেসর অনেক স্মুথ কাজ করে।

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) ৫জি স্মার্টফোন এর ইন্টার্নাল মেমরি ১২৮ জিবি। মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে যা আরও বাড়িয়ে নেওয়া যায়। ব্যাকসাইডে ডুয়াল ক্যামেরা আছে। যাতে f/17 সেন্সর ও অ্যাপার্চার সিস্টেম ইনক্লুড করা। ব্যাক ক্যামেরার মূলটা ৪৮ মেগাপিক্সেলের, অন্যটা ২ মেগাপিক্সেলের। ফ্রন্ট ক্যামেরায় অভাবনীয়ভাবে ৮ মেগাপিক্সেল দিচ্ছে ওপো। যাতে f/2.0 অ্যাপার্চারের সঙ্গে সেলফি শুটার স্পেসিফিকেশন দেওয়া হয়েছে।

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) এর ব্যাটারি ক্যাপাসিটি অনেক বেশি। 5000 mAh ব্যাটারি পাওয়ার ক্যাপাসিটি দেওয়া হচ্ছে। সেইসঙ্গে 33W এর ফাস্ট চার্জিং সিস্টেম দিচ্ছে ওপো। ফলে মোবাইল ফুল চার্জ হতে আগের থেকে অনেক কম সময় লাগবে।

ওপো এ৭৭ (Oppo A77) আপাতত সরকারি ব্লু ও সানসেট অরেঞ্জ এই দুই কালার কম্বিনেশন সেট পাওয়া যাচ্ছে। দাম শুরু হচ্ছে ১৫,৪৯৯ থেকে।

আপনি যদি কলেজ স্টুডেন্ট হন বা মাসে খুব বেশি টাকা ইনকাম না করেন, কিন্তু একটা ভালো ৫জি স্মার্টফোন চাইছেন, যেখানে ছবি ভালো উঠবে, গেম খেলাও যাবে অথচ ফোন হ্যাং করবে না, তাহলে ওপো এ৭৭ মডেলটাই আপনার জন্য বেস্ট হবে। যেহেতু শুরুতেই ওয়ান প্লাস ১০-টি এর সঙ্গে ওপো এ৭৭ মডেলের তুলনা করেছি, তাই এবার ওয়ান প্লাস ১০-টি এর ফিচার্সগুলো একবার দেখে নেব।

সুপার ফাস্ট চার্জিং

ওয়ান প্লাস (OnePlus) ১০-টি এর সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল এর চার্জিং সিষ্টেম। মাত্র ১৯ মিনিটের মধ্যে ১ থেকে ১০০ শতাংশ চার্জ হয়ে যাবে! এর ব্যাটারিও সবচেয়ে বড়। ১৫০ ওয়াটের SUPERVOOC এডিশনের ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। ফলে দ্রুত চার্জ হ‌ওয়া জলভাত ব্যাপার। মোবাইল ব্যবহারকারীদের যাতে চার্জ দিতে গিয়ে বেশি সময় নষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই এই ব্যবস্থা করেছে ওয়ান প্লাস।

ওয়ান প্লাস ১০-টি (OnePlus) এর ব্যাটারিকে কার্যকরি ও দক্ষ করে তোলার জন্য যথেষ্ট সময় ব্যয় করেছে সংস্থা। ব্যাটারির লাইফস্প্যান, অর্থাৎ মেয়াদ যাতে বাড়ে সেদিকেও নজর দেওয়া হয়েছে। এই হ্যান্ডসেটটির ব্যাটারির ক্যাপাসিটি হল ৪,৮০০ mAh। ওয়ান প্লাস ১০-টি তে দুটো চার্জিং পাম্প আছে। অথচ বেশিরভাগ স্মার্ট ফোনে একটাই চার্জিং পাম্প থাকে। সুপার ফাস্ট চার্জের উপযোগী কুলিং সিস্টেম‌ও রাখা হয়েছে। ফলে ফোনের ক্ষতি হ‌ওয়ার কোন‌ও সম্ভাবনা নেই।

শক্তিশালী সিগন্যাল

ওয়ান প্লাস (OnePlus) ১০-টি তে ১৫ টা অ্যান্টেনা আছে! ফোনের সিগন্যালিং সিস্টেমকে শক্তিশালী করতে এই ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেল থেকেই সিগন্যাল রিসিভ করতে পারে ফোন। ওয়াইফাই এবং মোবাইল নেটওয়ার্কের সিগন্যাল সবার থেকে ভালো রিসিভ করে। এই বৈশিষ্ট্যের ফলে কোন দিকে ফোন ধরেছেন তা কোন‌ও বিষয়‌ই হয় না। পাহাড়ি এলাকা বা জঙ্গলে সহজেই সিগন্যাল পাওয়া যায়। নেটওয়ার্ক কনভেনশন কোন‌ও বাধা তৈরি করতে পারে না।

ডিজাইন

ওয়ান প্লাস (OnePlus) ১০-টি এর ডিসপ্লে ৬.৭ ইঞ্চি। এটি মুনস্টোন ব্ল্যাক ও জ্যাডেন গ্রিন রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এর রিফ্রেশ রেট হল ১২০ Hz। ওয়ান প্লাস ১০-টি তার বিজ্ঞানের জন্য ব্যাটারি কম খরচ হয়। ফলে চার্জ অনেক বেশি সময় ধরে থাকে। ১০ বিট কালারের জন্য যে কোনও ইমেজ অনেক বেশি রিয়েলিস্টিক মনে হয়।

ক্যামেরা

ওয়ান প্লাস ১০-টি তে ট্রিপল ক্যামেরা সিস্টেম আছে। যাতে আছে ৫০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। লেন্সে আছে- Sony IMX766 sensor। ফলে ক্যামেরা ব্যবহারের অনুভূতি এক অন্য পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছয়। সেই সঙ্গে অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশন, নাইটস্কেপ ২.০ বৈশিষ্ট্য‌ও আছে। ফলে চড়া রোদ বা রাতের অন্ধকারে‌ও দারুণ ছবি তোলা যায়।

ওয়ান প্লাস ১০-টি এর মূল ক্যামেরা আল্ট্রা ওয়াইড ও ম্যাক্রো। ফলে যে কোনও ছবি অনেক ডিটেলসে ও একেবারে কাছে থেকে তোলা সম্ভব হয়।

অপারেটিং সিস্টেম

ওয়ান প্লাস ১০-টি এর অপারেটিং সিস্টেম হল অক্সিজেন ওএস ১২.১। অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভার্সানের বেসের উপর এটি তৈরি হয়েছে। ওয়ান প্লাস ১০-টি তিনটে বড় আপডেট নেবে। এছাড়াও তার বছরের সিকিউরিটি আপডেটের সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

তবে ওয়ান প্লাস ১০-টি মডেলটা কিনতে হলে আপনাকে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ করতে হবে!

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please Disable your ADBlocker!